Scholarships – উচ্চশিক্ষা নিয়ে চিন্তিত? আগস্ট মাসের 5 টি স্কলারশিপে আবেদন করার সুযোগ রয়েছে।

Scholarships – আবেদন সংক্রান্ত বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন।

উচ্চশিক্ষিত হওয়া, তারপর ভালো একটা চাকরি করে পরিবারের পাশে দাঁড়ানো (Scholarships)। আর্থিক দিক থেকে সাহায্য করতে চান অনেক পড়ুয়াই। আর সেই স্বপ্নই ছোটবেলার থেকে দেখেন। কিন্তু পড়াশোনায় ভালো হলেও মাঝপথেই থেমে যায় অনেক পড়ুয়ারই পড়াশোনা। যদিও আজকে এই প্রতিবেদনে আগস্ট মাসের 5 টি গুরুত্বপূর্ণ স্কলারশিপ সম্পর্কে জানানো হবে। যেগুলিতে পড়ুয়ারা আবেদন জানাতে পারবেন।

Advertisement

সন্তানের পাশাপাশি অভিভাবকরাও সন্তানের উচ্চশিক্ষা নিয়ে চিন্তিত থাকেন। কিন্তু এখন আর নয় কোনো চিন্তা। বর্তমানে পড়ুয়াদের উচ্চশিক্ষা সম্পন্ন করার জন্য দেশে সরকারি বা বেসরকারিভাবে দেওয়া হয় স্কলারশিপ। যেগুলিতে আবেদন করলেই পাওয়া যায় বৃত্তি। চলুন তাহলে এই সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক। (Scholarships)

এবার SBI এর গ্রাহকেরা এই ব্যাঙ্কিং পরিষেবা পাবেন বাড়িতে বসেই, বিশদে জানুন

১) স্বামী বিবেকানন্দ মেরিট কাম মিন্স স্কলারশিপ বা SVMCM-
এটি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার দ্বারা প্রদত্ত একটি স্কলারশিপ। একাদশ, দ্বাদশ শ্রেণি থেকে শুরু করে স্নাতক, স্নাতকোত্তর এবং গবেষণার ক্ষেত্রেও বৃত্তি প্রদান করা হয়ে থাকে। তবে এই স্কলারশিপ পেতে হলে নির্দিষ্ট কিছু নিয়ম মানতে হবে। সেগুলি হল-
১) একাদশ বা দ্বাদশ শ্রেণীতে এই স্কলারশিপ পেতে হলে মাধ্যমিক বা সমতূল্য পরীক্ষায় ৭৫% নম্বর পেতে হবে। বার্ষিক পাওয়া যাবে ১২,০০০ টাকা। (Scholarships)

Ads

২) স্নাতক স্তরে এই স্কলারশিপ পেতে হলে উচ্চমাধ্যমিক বা সমতূল্য পরীক্ষায় কমপক্ষে ৬০% নম্বর পেতে হবে। স্নাতক স্তরে (সায়েন্স) এর ক্ষেত্রে – বার্ষিক ১৮,০০০ টাকা, মেডিক্যাল ও ইঞ্জিনিয়ারিং- বার্ষিক ৬০,০০০ টাকা এবং আর্টস এবং কমার্স- বার্ষিক ১২,০০০ টাকা।
৩) স্নাতকোত্তর স্তরে এই স্কলারশিপ পেতে হলে স্নাতক স্তরে ন্যূনতম ৫৩% নম্বর পেতে হবে। স্নাতকোত্তর স্তরে সাইন্স এর ক্ষেত্রে- বার্ষিক ৩০,০০০ টাকা এবং আর্টস ও কামার্স- বার্ষিক ২৪,০০০ টাকা পাওয়া যাবে।
৪) গবেষনার ক্ষেত্রে স্কলারশিপ হিসেবে নন- নেট এম. ফিল ও নন-নেট পিএইচডি করলে মাসিক ৫,০০০ টাকা এবং ৮,০০০ টাকা দেওয়া হবে। (Scholarships)

Advertisement

আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় ২,৫০,০০০ টাকা বা তার কম হতে হবে। বর্তমানে একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর পড়ুয়ারা ফ্রেশ এবং রিনিউয়ালের জন্য অ্যাপ্লিকেশন সাবমিট করতে পারবেন। ১৭ আগস্ট, ২০২২ তারিখ থেকে একাদশ এবং দ্বাদশ শ্রেণীর ফ্রেশ এবং রিনিউয়ালের অ্যাপ্লিকেশন শুরু হয়েছে।
আরো বিশদে জানতে হলে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করে জেনে নিতে পারেন-
https://svmcm.wbhed.gov.in/

Advertisement

২) ওয়েসিস (Oasis) স্কলারশিপ-
রাজ্য সরকারের তরফ থেকে সংরক্ষিত (SC বা ST বা OBC) গোষ্ঠীর পড়ুয়াদের এই স্কলারশিপ প্রদান করা হয়। এক্ষেত্রে পরিবারের বার্ষিক আয় ২ লাখ টাকার কম হতে হবে।
প্রি-ম্যাট্রিক লেভেল- পশ্চিমবঙ্গের নবম-দশম শ্রেণীর SC/ST গোষ্ঠীর পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন জানাতে পারবেন। এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে বার্ষিক ২,২৫০ টাকা-৮,৫০০ টাকা স্কলারশিপ হিসেবে দেওয়া হবে। (Scholarships)

Ads

পোস্ট-ম্যাট্রিক লেভেল– পশ্চিমবঙ্গের একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণীর SC/ST/OBC গোষ্ঠীর পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন জানাতে পারবেন। এক্ষেত্রে আবেদনকারীদের বার্ষিক ২,৭৬০ টাকা-৯,০০০ টাকা স্কলারশিপ হিসেবে দেওয়া হবে।
স্নাতক স্তরে– আর্টস বা কমার্স বা সায়েন্স- বার্ষিক ৩,৬০০ টাকা-৯,০০০ টাকা। স্নাতক (হোটেল ম্যানেজমেন্ট বা L.L.B বা ফার্মেসি, নার্সিং) বার্ষিক ৬,৩৬০ টাকা-৯,৮৪০ টাকা।
স্নাতকোত্তর স্তরে– বার্ষিক ৬,৩৬০ টাকা-৯,৮৪০ টাকা। এছাড়া মেডিক্যাল/ইঞ্জজিনিয়ারিং/B.Sc (এগ্রিকালচার/এম.ফিল/পি এইচ ডি/LLM)- বার্ষিক ৬,৬০০ টাকা-১৪,৪০০ টাকা। (Scholarships)

বর্তমানে এই স্কলারশিপের আবেদন জানাতে পারবেন। আবেদনের শেষ তারিখ অফিশিয়ালভাবে এখনও জানানো হয়নি। আরো বিশদে জানতে হলে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করে জেনে নিতে পারেন-
http://oasis.gov.in/

৩) ন্যাশনাল স্কলারশিপ পোর্টাল– এটি হল একটি সরকারি স্কলারশিপ, যেটি কেন্দ্র, রাজ্য এবং UGC এর অধীনস্থ। পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপের নির্দিষ্ট যোগ্যতা অনুসারে আবেদন করতে পারবেন। বর্তমানে এই পোর্টালের অধীন সকল স্কলারশিপগুলির আবেদন চলছে। আরো বিশদে জানতে হলে নিচে দেওয়া ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদনকারীরা জেনে নিতে পারবেন। (Scholarships)
ন্যাশনাল স্কলারশিপ পোর্টালের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটটি হল – https://scholarships.gov.in/

ডিএ প্রসঙ্গে অবাক সরকারি কর্মীরা, হঠাৎ ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর। চমকে গেলেন আধিকারিকেরা

৪) ঐকশ্রী প্রকল্প-
এই স্কলারশিপের মাধ্যমে রাজ্যের সকল সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের পড়ুয়াদের উচ্চশিক্ষার জন্য সাহায্য করা হয়। এক্ষেত্রে আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গের কেন্দ্র বা রাজ্য সরকারের অধীনস্থ এবং স্বীকৃতিপ্রাপ্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়াশোনা করতে হবে। পশ্চিমবঙ্গের স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে মুসলিম, শিখ, জৈন,খ্রিস্টান, বৌদ্ধ ও পারসি – এই ছয়টি সম্প্রদায়ের মধ্যে যেকোনো একটি সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত হলেই এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করা যাবে (Scholarships)। তবে অন্যান্য কয়েকটি নিয়ম মানতে হবে-
১) পূর্ববর্তী পরীক্ষায় কমপক্ষে ৫০% নম্বর থাকতে হবে (প্রথম শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীদের জন্য দরকার নেই)।

উল্লেখ্য, আবেদনকারীর পরিবারের বার্ষিক আয় ২ লক্ষ বা তার কম হতে হবে।
বর্তমানে এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন চলছে। ১৫ আগস্ট থেকে এই স্কলারশিপের আবেদনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আবেদন জানানো যাবে আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত। আরো বিশদে জানতে হলে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ওপেন করে জেনে নিতে পারেন-
https://www.wbmdfc.org/

সীতারাম জিন্দাল স্কলারশিপ- এটি একটি প্রাইভেট স্কলারশিপ। যেটি সীতারাম জিন্দাল ট্রাস্টির পক্ষ থেকে পড়ুয়াদের প্রদান করা হয়ে থাকে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে স্বীকৃত যেকোনো বোর্ড থেকে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক, ইঞ্জিনিয়ারিং, নার্সিং, ফার্মেসি, মেডিক্যাল বা স্নাতক স্তর, ডিপ্লোমা ইত্যাদি ক্ষেত্রে পাঠরত পড়ুয়ারা এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন। বর্তমানে এই স্কলারশিপের জন্য আবেদন চলছে। কেবলমাত্র অফলাইনেই করা যাবে আবেদন। (Scholarships)

এছাড়া পশ্চিমবঙ্গের মেধাবী ছাত্রছাত্রীরা উচ্চশিক্ষার জন্য বেসরকারি বা প্রাইভেট স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারেন, সেগুলি হল-
১) জিপি বিড়লা স্কলারশিপ।
২) কলগেট স্কলারশিপ।
৩) রায়-মার্টিন স্কলারশিপ।
৪) প্রিয়ম্বদা বিড়লা স্কলারশিপ।
৫) অনন্ত মেধা বৃত্তি। (Scholarships)
এই সংক্রান্ত অন্যান্য খবরের আপডেট সবার আগে পেতে হলে এই ওয়েব পোর্টালটি ফলো করতে ভুলবেন না।
Written by Manika Basak.

লটারি কাটার চানক্যনীতি, এই টেকনিক কাজে লাগালে জিত নিশ্চিত

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement