Mustard Oil Price – কমে গেল তেলের দাম। সর্ষের তেল, রাইস তেল ও রিফাইন্ড তেলের দাম জেনে নিন।

দাম কমছে ভোজ্য তেলের (Edible Oil Price, Mustard Oil Price), একটুখানি হলেও স্বস্তি দেশবাসীর, নতুন দাম কত জেনে নিন?
এক ধাক্কায় কমে গেল সর্ষের তেলসহ অন্যান্য ভোজ্য তেলের দাম। দেশজুড়ে যখন ক্রমাগত মূল্যবৃদ্ধি, যে কোনো জিনিসপত্রের দাম একেবারে আকাশছোঁয়া, সেই ধাক্কা সরাসরি রান্নাঘরে এসে পড়েছে। যার ফলে সাধারণ মানুষের জীবন একেবারে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। এরকম একটা পরিস্থিতিতে ভোজ্য তেলের দাম কমানোর সিদ্ধান্তে দেশবাসী অনেকটাই স্বস্তি পেল।

Advertisement

Mustard Oil Price today:

সর্ষের তেলসহ অন্যান্য ভোজ্য তেল বেশ কিছুটা কম দামেই এখন বাজার থেকে কিনতে পারবেন মানুষেরা। আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্য তেলের দাম কমার কারণে কেন্দ্রীয় সরকার ভোজ্য তেল প্রস্তুতকারী সংস্থাগুলিকে তাদের সদস্যদের দাম কমানোর জন্য জানায়। আর তারপরেই দেখা গেল, ধারা ব্র্যান্ড ভোজ্য তেলের দাম এক ধাক্কায় লিটার প্রতি ১০ টাকা কমে গিয়েছে।

Edible oil price today

এই ধারা ব্র্যান্ড ভোজ্য তেল মাদার ডেয়ারি কোম্পানির। তারা তাদের সর্ষের তেল (Mustard Oil Price) সহ অন্যান্য সমস্ত ভোজ্য তেলের ক্ষেত্রে দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ২০২৩ সালের মে মাসে এই ভোজ্য তেলের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নেয় মাদার ডেয়ারি। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে ভোজ্য তেলের দাম 8 থেকে 12 টাকা কমানোর জন্য জানানো হয়েছিল।

Ads
Mustard Oil Price - সর্ষের তেলের দাম

যেহেতু আন্তর্জাতিক বাজারেও ভোজ্য তেলের দাম (Mustard Oil Price) অনেকটাই কমে গিয়েছে, সেই কারণেই এই দাম কমানোর নির্দেশ দেয় সরকার। কারণ সরকার মনে করে আন্তর্জাতিক বাজারে দাম কমানো হলেও দেশের মধ্যে প্যাকেটজাত ভোজ্য তেলের দাম কমানো হয়নি। সেই কারণে এবার দেখা গেল সরকারের হস্তক্ষেপের পরেই সর্ষের তেলসহ অন্যান্য ভোজ্য তেলের দাম কমতে চলেছে।

Advertisement

Edible Oil Price list:

  • ধারার পরিশোধিত সবজি তেল ২০০ টাকা করা হয়েছে।
  • পরিশোধিত রাইস ব্র্যান অয়েল ১৬০ টাকা করা হয়েছে।
  • পরিশোধিত সয়াবিন তেলের দাম ১৪০ টাকা হয়েছে।
  • ফরচুনের সরিষার তেল জিও মার্টে ১৩৩ টাকায় মিলছে।
  • ইমামি সরিষার তেল ১২২ টাকায় মিলছে।

এই প্রসঙ্গে মাদার ডেয়ারির এক মুখপাত্র বলেন, ধারা এডিবেল অয়েল এর সমস্ত ভ‍্যারিয়েন্টের ওপরে লিটার প্রতি 10 টাকা করে দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। একদিকে আন্তর্জাতিক বাজারে ভোজ্য তেলের দাম কমেছে, ঠিক সেইভাবে দেশের মধ্যেও সর্ষের আমদানি যথেষ্টই বেড়েছে। সর্ষের তেলসহ ভোজ্য তেলের দাম কমার ফলে বর্তমান দুর্মূল্যের বাজারে সাধারণ মানুষ অন্তত কিছুটা হলেও স্বস্তি পাবেন।

Advertisement

আরও পড়ুন, PNB ব্যাংকে একাউন্ট থাকলেই কেল্লাফতে! আবেদন করলেই পাবেন নগদ 50000 টাকা।

এই মুহুর্তে তেলের দাম কমানোয় সাধারণ মানুষের স্বস্তি ফিরেছে। আর কিছুদিন পরেই বকরি ঈদ। আর উৎসবের সময়েও এটা একটি খুসির বার্তা। এবার এই তেলের দাম দুর্গা পুজো পর্যন্ত কম থাকলেই সেটা জনগনের জন্য আরও ভালো হবে। কিন্তু আশংকার কারন হলো অনেক অসাধু ব্যবসায়ী বেআইনি ভাবে তেল মজুদ করে রাখতে পারে। এতে বাজারে এক কৃত্তিম সংকট তৈরী করে ফের দাম (Mustard Oil Price) বাড়তে পারে। তেমনটাই আশংকা করছেন অনেকে। সেই ব্যাপারে প্রশাসনের সতর্কতা প্রয়োজন।

Ads

Leave a Comment

Advertisement