Passport Seva – পাসপোর্ট করার নতুন নিয়ম, এই ডকুমেন্টস না থাকলে পাসপোর্ট হবে না।

কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন ঘোষণায় জানা গিয়েছে যে, পাসপোর্ট বানাতে গেলে (Passport Seva পোর্টালে) এখন থেকে নতুন এই নিয়ম মেনে চলতে হবে। নয়তো পাসপোর্ট বানানোর অনুমতি পাওয়া যাবে না। গুরুত্বপূর্ণ পরিচয় পত্রের প্রমাণ হলো পাসপোর্ট। সরকারি চাকরিতে আবেদন থেকে শুরু করে বিমানে যাতায়াত সব ক্ষেত্রেই দরকার পড়ে এটির। আর এই পাসপোর্ট নিয়েই New Passport seva জারি করল এবার কেন্দ্রীয় সরকার। ঘোষণায় যা বলা হলো তার মাধ্যমে সতর্ক হলেন কোটি কোটি দেশবাসী।

Advertisement

Passport Seva Portal.

কেন্দ্রীয় সরকার মারফত জানা গেছে, নতুন নিয়ম অনুযায়ী এবার থেকে পাসপোর্ট বানাতে গেলে দরকার পড়বে এক বিশেষ নথির। এই নথি না থাকলে সরকার থেকে সেই ব্যক্তির পাসপোর্ট তৈরি করার অনুমতি দেওয়া হবে না কিছুতেই। কেন্দ্রীয় সরকার আরো জানিয়েছে, যাদের ইতিমধ্যেই পাসপোর্ট তৈরি করা হয়ে গেছে তাদের এক্ষেত্রে কিছু করতে হবে না। কিন্তু যারা এরপর থেকে নতুন পাসপোর্ট তৈরি করবেন তাদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে এই Passport Seva.

সেক্ষেত্রে আপনারও যদি পাসপোর্ট বানানোর দরকার হয় তবে অবশ্যই এখন থেকে জেনে নিন এই নতুন নিয়ম সম্পর্কে। 2023 সালের বর্ষাকালীন অধিবেশনে ভারতীয় লোকসভায় একটি বিল পেশ করা হয়েছিল যে পাসপোর্ট বানাতে বার্থ সার্টিফিকেট বা জন্ম সংসা পত্র দেখানো আবশ্যক করা উচিত। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই এই জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন বিল পেশ করেছিলেন সেখানে।

Ads

এই বিলের বিরোধিতা করেন কংগ্রেস সাংসদ মণীশ তিওয়ারি। তিনি দাবি করেন, এই বিল জনগণের গোপনীয়তার অধিকার নষ্ট করবে। তবে তার প্রতিবাদ স্থায়ী হয়নি। লোকসভায় অনেকের দ্বারা সমর্থিত হয়েছিল এই বিল। এর পরে 7th আগস্ট তা রাজ্যসভাতেও পূর্ণ সমর্থন পেয়ে পাস হয়েছিল। তারপর সেই বিল পাঠানো হয় রাষ্ট্রপতি দ্রৌপদী মুর্মূর কাছে। তিনিও স্বাক্ষর করেন সেই v বিলে।

Advertisement

ফলে এখন তা আইনে পরিণত হয়ে গিয়েছে। এই আইন জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সংশোধনী আইন 2023 নামে পরিচিত হয়েছে। 1st অক্টোবর 2023 থেকে এই New Passport Rules আইন কার্যকর করা হয়েছে সারাদেশে। সংশ্লিষ্ট বিষয় সম্পর্কে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক মারফত একটি বিবৃতি জারি করা হয়েছে। যেখানে কেন্দ্র জানিয়েছে, 1st অক্টোবর থেকে জন্ম শংসাপত্রকেই একক শংসাপত্র হিসেবে গ্রহণ করা হবে।

Advertisement

ঘরের লাইট জ্বালালেই শ্যামা পোকার উপদ্রব? জেনে নিন শ্যামা পোকা

যার দরুন এরপর থেকে স্কুল-কলেজে ভর্তির জন্য, ড্রাইভিং লাইসেন্স পেতে, ভোটার তালিকায় নাম যুক্ত করা, আধার নম্বর প্রদান, বিবাহ নিবন্ধন এবং সরকারি চাকরি পেতে শুধুমাত্র জন্ম শংসাপত্রের প্রমাণ থাকলেই চলবে। আর দরকার নেই অন্য কোন নথির। এই বিবৃতিতে আরো জানানো হয়েছে, এই আইনটি জন্ম ও মৃত্যুর জাতীয় ও রাজ্য স্তরের Passport Seva ডেটাবেস তৈরি করতে সাহায্য করবে।

Ads
Click Here

এটি সামাজিক প্রকল্পের বিতরণে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে এবং ডিজিটাল নিবন্ধন নিশ্চিত (Passport Seva) করতে সহায়তা করবে। শংসাপত্র তৈরীর জন্য ব্যক্তির জন্ম ও মৃত্যুর পর সাত দিনের মধ্যে আবেদন করা যাবে। New Passport Rules নিয়ে কেন্দ্রের নতুন এই নিয়ম সম্পর্কে বিশাখাপত্তনম আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস বলেছে যে, 1st অক্টোবর 2023 তারিখে বা তার পরে যারা জন্মগ্রহণ করবে, তাদের জন্য পাসপোর্ট পাওয়ার আবেদন করতে গেলে দরকার পড়বেই জন্ম শংসাপত্রের প্রমাণ।

কম দামে ভারতীয় বাজারে মোবাইল ফোন আনল JIO. দুর্দান্ত ফিচার্সের সঙ্গে আরও আকর্ষণীয় অফার।

কর্তৃপক্ষ মারফত আরো বলা হয়েছে, জন্ম শংসাপত্রের ব্যবহারের ফলে নির্দিষ্ট কাজে সরকারের কোন বিভ্রান্তি সৃষ্টি হবে না। হলে বিষয়টি আরো স্বচ্ছ এবং সহজতর হবে। সরকারি এক বিবৃতিতে এ তথ্য প্রকাশিত হয়েছে।
Written by Nabadip Saha.

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement