রাজ্যের স্কুলে মিড ডে মিল নিয়ে বেশ চিন্তায় শিক্ষামন্ত্রী, টুইট করলেন ব্রাত্য বাবু! বিস্তারিত দেখুন।

রাজ্য জুড়ে সমস্ত স্কুলে চলে মিড ডে মিল প্রকল্প। তবে এবারে সেই প্রকল্পের বরাদ্দ নিয়ে নতুন তথ্য সামনে উঠে এলো। সম্প্রতি কেন্দ্র সরকারের পক্ষ থেকে রাজ্যের জন্য কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। আর এই নিয়েই শুরু হয়েছে বিতর্ক। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু সম্প্রতি টুইট করে নিজের মন্তব্য তুলে ধরেছেন। কেন্দ্র সরকারের তরফ থেকে বেশ কয়েক বার এরাজ্যে রিপোর্ট তলব করতে এসেছে কেন্দ্রীয় দল। তাদের রিপোর্টের ভিত্তিতেই কি এই সিদ্ধান্ত! আজকের এই প্রতিবেদনে তা জেনে নেওয়া যাক।

Advertisement

মিড ডে মিল নিয়ে তোলপাড় করা কাণ্ড রাজ্যে।

মিড ডে মিলের কাঠামোতে বদল, কেন্দ্রকে চিঠি ব্রাত্য বসুর। কেন্দ্র নাকি রাজ্যকে বঞ্চিত করতে চায়। এর জন্যেই নাকি বিভিন্ন কেন্দ্রীয় প্রকল্পের টাকা এখনও রাজ্য সরকারের কাছে এসে পৌঁছয় নি। যেসব প্রকল্পের টাকা এখনও আসছে, সেগুলিতেও কোনো খুঁত খুঁজে পেলে টাকা পাঠানো বন্ধ করে দেওয়া হবে এমনটাই নাকি কেন্দ্রীয় সরকারের অভিসন্ধি বলে মনে করছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু। কারণ ইতিমধ্যেই একশো দিনের কাজ প্রকল্প এবং আবাস যোজনাতেও টাকা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

এবার মিড–ডে মিল নিয়েও বেশ দোলাচলে আছে রাজ্য সরকার। কেন্দ্রের কাজের ধরণ দেখে তার ফলস্বরূপ এবার কড়া ভাষায় একটি চিঠি লিখলেন ব্রাত্য বসু। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে রাজ্যের মিড–ডে মিলের জন্য দু’‌দিন আগেই ৬৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। তবে এটি মূলত রুটিন বরাদ্দ বলেই দাবি করছে রাজ্যের শিক্ষা দফতর।

Ads

রাজ্যে মিড ডে মিলের প্রকল্প চালাতে কেন্দ্রের কাছ থেকে ওই টাকা সরকারের প্রাপ্য বলেই জানা গিয়েছে। তবে মিড ডে মিল নিয়ে রাজ্য সরকারের অসন্তোষের কারণ অবশ্য আলাদা। রাজ্যের অভিযোগ বাংলায় মিড–মিল প্রকল্পের বাস্তবায়ন নিয়ে কেন্দ্রের টিম সম্পূর্ণ একতরফা একটি রিপোর্ট পেশ করেছে। নিয়ম অনুযায়ী, যে কোনও যৌথ প্রকল্পে এবং যৌথ পরিদর্শনে যে রিপোর্ট তৈরি হয় সেখানে যৌথ সাক্ষর থাকে। কিন্তু এই মিড ডে মিল সংক্রান্ত রিপোর্টের ক্ষেত্রে অবশ্য সেই নিয়ম মানা হয়নি।

Advertisement

এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো ভাঙার অভিযোগ উঠেছে। যা নিয়েই অসন্তুষ্ট রাজ্য। শিক্ষামন্ত্রী টুইটে কী লিখেছেন? জয়েন্ট রিভিউ মিশনের চেয়ারম্যানের উদ্দেশ্যে একটি টুইট করে তিনি গোটা ঘটনাটি জানান। সেই টুইটে লেখা হয়েছে, ‘রাজ্য–কেন্দ্রের যে কোনও যৌথ প্রকল্পেই জয়েন্ট রিভিউ মিশন থাকে। যে মিশনে কেন্দ্র–রাজ্য সরকারের প্রতিনিধিরা থাকেন।

Advertisement

ক্ষুদ্র সঞ্চয় প্রকল্পে এবারে মিলবে বাড়তি সুদ, KYC হবে আরও সহজ! বিস্তারিত জেনে রাখুন।

এই বছর জানুয়ারি মাসের শেষে এবং ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথমে জয়েন্ট রিভিউ মিশন রাজ্যের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে মিড ডে মিল স্কিমের বাস্তবায়ন পরিদর্শন করেন। ওই টিমে কেন্দ্রের সঙ্গে রাজ্যের প্রতিনিধিরাও ছিলেন। সেখানে কেন্দ্রের প্রতিনিধিরা একতরফা একটি রিপোর্ট পেশ করেছেন। ওই রিপোর্টে রাজ্যের অফিসারের সই নেই।

Ads

এপ্রিলে বদলে গেল সুদের হার, ব্যাংকে টাকা রাখার আগে দেখে নিন কোন ব্যাংকে কত সুদ।

এমনকী রিপোর্টে কী লেখা আছে তাও রাজ্যের অফিসারদের জানানো হয়নি। এটা যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোর পরিপন্থী।’  শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, টুইটের জবাব পাবার পরে রাজ্য সরকারের তরফে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। কিন্তু আদৌ কি কোনো সমঝোতা করা হবে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে? রাজনৈতিক মহলে তা নিয়েই বিশ্লেষণ চলছে।
Written by Parna Banerjee.

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement