দুয়ারে সরকার ক্যাম্পের নতুন আকর্ষণ, ভোটের আগে শেষবার পরিষেবা দিচ্ছে রাজ্য সরকার।

রাজ্যে দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে সরকারের তরফে রাজ্যের সমস্ত মানুষকে সরকারি সুযোগ সুবিধা দিতে প্রস্তুত রাজ্য সরকার। রাজ্যের আর্থিক পরিস্থিতি ততটা স্বচ্ছল না থাকলেও রাজ্য সরকার এই দুয়ারে সরকার সাধারণ মানুষের পাশে থাকতে মরিয়া। এবারের ক্যাম্পে থাকছে বেশ নতুন কিছু সুযোগ সুবিধা। আর যারা আবেদন করতে চান, তারা বেশি দেরি না করে নিজেদের কাগজ পত্র গুছিয়ে রাখুন, যাতে করে ক্যাম্প শুরু হবার সাথে সাথে নিজের কাজ সেরে ফেলতে পারেন খুব তাড়াতাড়ি।

Advertisement

দুয়ারে সরকার ক্যাম্প নিয়ে বেশ তোড়জোড় রাজ্যে।

এপ্রিল মাসে আবার শুরু হচ্ছে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প। নবান্ন থেকে জারি করা হল নির্দেশ। আগামী ১ এপ্রিল থেকে দুয়ারে সরকার প্রকল্পের ষষ্ঠ সংস্করণ চালু করা হবে। নবান্নের তরবে নির্দেশ জারি করা হয়েছে বুথভিত্তিক শিবির আয়োজন করার জন্য। গত ২০ মার্চ দুয়ারে সরকার নিয়ে একটি বৈঠকের আয়োজন করা হয়। যেখানে উপস্থিত ছিলেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদ্বী এবং সংশ্লিষ্ট দপ্তরের পদস্থ কর্তারা এবং জেলা প্রশাসনের আধিকারিকেরা।

সেদিনের বৈঠকেই এই টাস্ক ফোর্স গঠন করার বিষয়টির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রাজ্যের অর্থ দফতরের অতিরিক্ত মুখ্যসচিব মনোজ পন্থকে প্রধান করে ২৩ সদস্যের একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করা হল। এই টাস্ক ফোর্সের সদস্য-সচিব রাখা হয়েছে পঞ্চায়েত সচিব পি উলগানাথনকে। এছাড়াও সদস্য হিসাবে পঞ্চায়েত দফতরের আরও পাঁচ আধিকারিককে রাখা হয়েছে। পাশাপাশি, রাজ্যের কৃষি, শিক্ষা, শ্রম-সহ আরও বিভিন্ন ১৬টি দপ্তরের সচিবদেরও এই টাস্ক ফোর্সের সদস্য হিসাবে নির্বাচন হয়েছে।

Ads

জানানো হয়েছে, এপ্রিল মাসের দুয়ারে সরকার শিবির চলবে ২০ দিন। এর জন্য ১০ এপ্রিল পর্যন্ত চলবে আবেদনপত্র নেওয়ার কাজ। পরবর্তী ১০ দিনে রাজ্য সরকার রাজ্যবাসীকে নির্দিষ্ট সুবিধাপ্রদান নিশ্চিত করবে। বৈঠকের ফলে তৈরী হওয়া টাস্ক ফোর্সের কাজ হবে, শিবির থেকে মানুষ সব রকম সুযোগসুবিধা পাচ্ছেন কিনা সেই বিষয়টি সুনিশ্চিত করা। অন্যদিকে, জেলাস্তরে সুবিধা পাওয়ার দিকে নজরদারির দায়িত্ব দেওয়া হবে সংশ্লিষ্ট জেলার জেলাশাসককে।

Advertisement

আগের পাঁচ বারের তুলনায় এ বার কম সময়ের জন্য দুয়ারে সরকারের শিবির হচ্ছে। আগে সাধারণত এক মাস ধরে এই শিবির চলত। কিন্তু আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোটের দিন ঘোষণা করা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। এই বছর তাই দুয়ারে সরকার শিবিরের মোট দিন সংখ্যা কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ফলত, আগে থেকেই শিবির কোথায় কোথায় বসবে, তার প্রচারে জোর দিতে বলা হয়েছে জেলাশাসকদের।

Advertisement

জিও রিচার্জে বাড়ছে দাম, কত টাকায় মিলবে প্ল্যান! জেনে রাখুন এখুনি।

বৈঠকে গ্রামীণ এলাকায় শিবিরের কাজ নিঁখুত ভাবে সম্পন্ন করার ব্যাপারে নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যসচিব। তিনি বলেন, এপ্রিলের দুয়ারে সরকার শিবিরকে পৌঁছতে হবে প্রত্যেকটি বুথে। ধারণা করা হচ্ছে, রাজ্যের আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটের কথা মাথায় রেখেই এবারে দুয়ারে সরকার শিবিরকে বুথ পর্যন্ত নিয়ে যাওয়ার ভাবনাচিন্তা করেছে রাজ্য সরকার।এর ফলে, পঞ্চায়েত ভোটের আগে গ্রামের মানুষের সঙ্গে সরকারের সরাসরি সংযোগ তৈরী হবে এবং সমস্ত সরকারি পরিষেবাও তারা পেয়ে যাবেন।

Ads

মার্কেটে নতুন এই ব্যবসা, একবার শুরু করলে খদ্দের সামলাতে পারবেন না।

এপ্রিলের ক্যাম্প থেকে বিধবা ভাতার আবেদন গ্রহণ এবং পরিষেবা প্রদান করা হবে। এর ফলে এইবারে মোট ৩৩টি সরকারি প্রকল্পের সুবিধা দেওয়া হবে শিবিরগুলিতে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে দুয়ারে সরকার শিবিরের পঞ্চম পর্যায়ে টানা দু’মাস পরিষেবা দেওয়া হয়েছিল রাজ্যবাসীকে। এই বারের দুয়ারে সরকার শিবির যে আদতে পঞ্চায়েত ভোট টানার উপলক্ষ্য, তা মনে করছে রাজ্যের অন্যান্য বিরোধী দলগুলি।
Written by Parna Banerjee.

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement