সমস্ত Youtuber ও Blogger দের উপর কড়া পদক্ষেপ, সমস্যা এড়াতে নতুন নিয়ম জেনে নিন।

আয়ের জন্য ইউটিউব চ‍্যানেল বা ওয়েবসাইট খুললে সাবধান, হতে পারে চরম সমস্যা। ইউটিউবারদের ও ডিজিটাল ক্রিয়েটরদের (Youtuber & Blogger) বাড়িতে হানা দিল ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্ট। ইউটিউব থেকে কোটি কোটি টাকা এই সমস্ত ইউটিউবাররা আয় করেছেন বলেই জানা যাচ্ছে। বিভিন্ন ধরনের প্রচার, ক্যাম্পেইন, অ্যাডভার্টাইজমেন্ট এবং অন্যান্য বিনিয়োগের থেকেই এই টাকা ইউটিউবাররা উপার্জন করেছেন।

Advertisement

Youtuber ও Blogger বাড়িতে আয়কর হানা

আর এরকম ৯ জন ইউটিউবারদের বাড়িতে হানা (Income Tax Raid in Youtubers House) দিয়েছে আয়কর দপ্তর। কেরালার ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্টের তরফে সেখানকার ৯ জন ইউটিউবারদের সমস্ত আর্থিক নথি তল্লাশি করে খতিয়ে দেখা হয়েছে। ওই ৯জন ইউটিউবারদের বাড়িতে হানা দিয়ে আয়কর দপ্তরের আধিকারিকেরা বিভিন্ন তথ্য পেয়েছেন। সেখানে জানা যাচ্ছে, প্রতিবছরে ১ থেকে ২ কোটি টাকা এই সমস্ত ইউটিউবাররা আয় করে থাকেন।

বিভিন্ন ধরনের ক্যাম্পেন এবং প্রচার করে এই ধরনের টাকা আয় করেন। সমাজমাধ্যমে ইউটিউবার (Youtuber) এবং ব্লগাররা (Blogger) নিয়মিত কন্টেন্ট ক্রিয়েট (Social Media Content Create) করেন। যার মাধ্যমে তারা টাকা উপার্জন করেন। ওই ইউটিউবারদের মধ্যে কেরালার জনপ্রিয় অভিনেতা পার্লে মানির বাড়িতেও আয়কর দপ্তর হানা দেয়। কেরালার ইনকাম ট্যাক্স ডিপার্টমেন্টের তরফে ত্রিশূর, আলাপুঝা, কোয়াট্টাম,এর্নাকুলাম সহ বিভিন্ন জায়গায় হানা দেওয়া হয়েছে।

Ads

ওই ইউটিউবারদের স্টেটমেন্ট, ব্যাংকিং স্টেটমেন্ট সহ অন্যান্য সমস্ত আর্থিক নথি তল্লাশি করে খুঁজে দেখা হয়েছে।
নিয়ম অনুযায়ী কোনো ইউটিউবার বা ব্লগার যদি সোশ্যাল মিডিয়া বা ডিজিটাল মিডিয়া থেকে ২০ লক্ষ টাকার বেশি আয় করেন, তাহলে তাকে বাধ্যতামূলকভাবে গুডস এন্ড সার্ভিসেস ট্যাক্স (GST) দিতে হবে। সেক্ষেত্রে ১৮% জিএসটি দিতে হবে ওই ইউটিউবার বা ব্লগারকে। তার মধ্যে 9 শতাংশ কেন্দ্রীয় পণ্য ও পরিষেবা কর CGST এবং ৯ শতাংশ রাজ্য পণ্য ও পরিষেবা কর SGST ফলে আইন অনুযায়ী ওই সমস্ত ইউটিউবারদের বিরুদ্ধে জি এস টি নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠছে।

Advertisement

যদিও ৯ জন ইউটিউবারের তরফে জানানো হয়েছে, তারা যে সমস্ত টাকা আয় করেন তার কোনো নির্দিষ্ট বাধাধরা সীমা নেই। মাসিক নির্দিষ্ট কোনো আয় নেই। সম্পূর্ণ দর্শকদের উপর ভিত্তি করেই তাদের আয় নির্ধারিত হয়। কেরালার জনপ্রিয় অভিনেতা পার্লে মানির বাড়িতেও ইনকাম ট্যাক্স আধিকারিকরা হানা দেয়। পার্লে মানি জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো এবং বিভিন্ন টেলিভিশন অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হিসেবে কাজ করেছেন।

Advertisement

আরও পড়ুন, টাইটানিক দেখতে গিয়ে উধাও টাইটান, ছিলেন 5 ধনকুবের, জেনে নিন তাদের পরিচয়।

এছাড়াও তার নিজস্ব ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে। যার সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২.৬ মিলিয়ন। কেরালার বিভিন্ন জায়গা জুড়ে আয়কর দপ্তরের তরফে তল্লাশি চালানো হয়েছে। কেরালার অভিনেতা পার্লে মানিসহ 9 জন ইউটিউবারের সমস্ত স্টেটমেন্ট খতিয়ে দেখেছেন আয়কর দপ্তরের আধিকারিকরা।

Ads

আরও পড়ুন, একজন সফল উকিল হতে চান? তাহলে অবশ্যই এই কয়েকটি নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেওয়া জরুরি।

এছাড়া যে পরিমান টাকা একাউন্টে ঢোকে সমস্ত টাকা তাদের আয় নয়। চ্যানেল ও ওয়েবসাইট চালাতে অনেক পেইড সফটওয়্যার ও যন্ত্রপাতি লাগে, সেগুলোর খরচ তারা রেভিনিউ থেকেই খরচ করেন। তাই এই সংক্রান্ত নির্দিষ্ট নিয়ম কানুন চালু করার দাবি করছেন ডিজিটাল ক্রিয়েটরেরা। কারন যিনি ঘুরে ঘুরে ব্লগ করেন, অনেক সময়ে তার ভিউ না হলে আয়ের চেয়ে ব্যয় বেশি হয়। তাই একাউন্ট ব্যালেন্স বা ক্রেডিট এমাউন্ট দেখে এটা নিশ্চিত করে বলা যায়না, যে সেটাই তাদের আয়।

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement