Indian Currency Bank notes- ভারতীয় ব্যাংক নোট

২০০০ টাকার Indian Currency নোটের পরে কি এবার বন্ধের পালা ৫০০ টাকার নোটের? আসতে চলেছে কি আবার পুরনো ১০০০ টাকার Indian notes? আসল বিষয় জানুন।
বেশ কিছুদিন আগেই ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank of India) দেশ জুড়ে ২০০০ টাকার Indian Bank Notes অবৈধ বলে ঘোষণা করে।

Advertisement

সমস্ত রকমের ২০০০ টাকার Indian Currency নোট যেগুলি গত ২০১৬ সাল থেকে চালু ছিল সেগুলির ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। স্বাভাবিকভাবে এরপর মানুষের মনে প্রশ্ন ওঠে তাহলে কি ৫০০ ও ১০০ টাকার নোটও বাতিল করে দেওয়া হবে দেশ থেকে? বা আবার কি ফিরতে চলেছে পুরনো সেই লাল ১০০০ টাকার নোট। এই বিষয় নিয়ে জল্পনা কল্পনা বেশ কিছুদিন ধরে তুঙ্গে উঠেছে।

Indian Currency Notes

কিন্তু সম্প্রতি এক বৈঠকে মানুষের এই সকল প্রশ্নের বা কৌতূহলের অবসান ঘটিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক বা RBI. এই দিন বৈঠকে এক Press Conferance এর মাধ্যমে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া (Reserve Bank of India) এর গভর্নর শক্তি কান্ত দাস সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন Indian Currency এর আসল সত্যি সম্পর্কে। বিস্তারিতভাবে জানতে শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

Ads

Again note ban of Indian Currency?

চলতি সপ্তাহের বৃহস্পতিবার রিজার্ভ ব্যাংকের এক Indian Currency MPC বৈঠকে RBI গভর্নর শক্তি কান্ত দাস জানিয়েছেন “নতুন করে Indian Currency নোট বাতিলের পরিকল্পনা ভা ধারনা পুরোপুরি ভাবেই মিথ্যা। বর্তমানে সামাজিক মাধ্যমে অনেক ভুয়ো খবর প্রচার হচ্ছে। এটা বন্ধ হওয়া দরকার। 500 টাকার নোট বন্ধ হওয়ার কোন সম্ভাবনা নেই বর্তমানে।

Advertisement

এছাড়া পুরনো ১০০০ টাকার নোটও এই মুহূর্তে ফিরছে না বাজারে। দেশবাসীরা সবাই শান্ত থাকুন এবং এরূপ কোন গুজবে কান দেবেন না। অথবা যারা Indian Currency নিয়ে এই ধরনের গুজব ছড়াবেন তাদের বিরুদ্ধেও কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করব আমরা ।” অতএব তার বক্তৃতায় এই কথাটি স্পষ্ট হয় যে ২০০০ এর পরেই ৫০০ এর নোট কিন্তু বন্ধ হচ্ছে না। অথবা কোন ভাবেই ১০০০ টাকার নোটও এখন ফিরে পাওয়া যাবে না বাজারে।

Advertisement
Digital Indian Currency

আমরা সকলেই জানি কয়েক মাস আগেই পুরনো সমস্ত ২০০০ টাকার নোট বাতিল বলে ঘোষণা করে দিয়েছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক। সেই স্বরূপ তারা দেশের সকল জনগণের উদ্দেশ্যে নির্দেশ দিয়েছেন যাদের কাছে এখনো পর্যন্ত এই ২০০০ টাকার নোট আছে তারা যেন অবিলম্বে নিজেদের ব্যাংকে গিয়ে সেগুলি পাল্টে অন্য নোট নিয়ে নেন। কিন্তু রিজার্ভ ব্যাংকের আচমকা এই পরিকল্পনার কারণে অসুবিধার মুখে পড়তে হয় কোটি কোটি দেশবাসীকে।

Ads

২০০০ টাকার নোট বদল না করলে কি হবে?

যদিও সরকার এই পুরনো ২০০০ টাকার নোটগুলিকে বৈধ রাখার শেষ সীমা জানিয়েছে ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩ তারিখ অব্দি। কিন্তু এই তারিখের পরও যদি কোন ব্যক্তির কাছে পাওয়া যায় ওই সংখ্যার নোট তাহলে সেই Indian Currency নোট অবৈধ বলে বিবেচনা করা হবে এবং তার সঙ্গে সেই ব্যক্তির কঠোর শাস্তিরও ব্যবস্থা করা হবে। এমনটা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে রিজার্ভ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

সেই কারণে ইতিমধ্যেই চালু হয়ে গেছে এই ২০০০ টাকার নোট ব্যাংকে জমা দেওয়া। প্রত্যেক গ্রাহকের কাছে যতগুলি ২০০০ টাকার নোট রয়েছে তারা নিজেদের ব্যাংকে গিয়ে সেগুলি বিনিময় করে নিয়ে নিচ্ছেন অন্য নোট।

আরও পড়ুন, সোনা কেনাবেচায় কড়া নিয়ম চাপলো। ক্রেতা ও বিক্রেতারা অবশ্যই জেনে নিন।

২০০০ টাকার নোট কিভাবে বদল করবেন?

এ ব্যাপারে রিজার্ভ ব্যাংক কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে জানানো হয়েছে ব্যাংকে এই ২০০০ টাকার নোট পরিবর্তনের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের কোনরকম ফর্ম ফিলাপ করতে হবে না। এছাড়া না তো প্রয়োজন আছে কোন পরিচয় পত্র জমা দেওয়ার। শুধুমাত্র ব্যাংকে গিয়ে ওই নোটটি দিলেই আপনার ব্যাংক আপনাকে তার বিনিময় দিয়ে দেবে সেই পরিমাণ অন্য নোট।

আরও পড়ুন, মোদীর নতুন প্রকল্প বিশ্বকর্মা যোজনা, কোটি কোটি মানুষ কি সুবিধা পাবেন?

সর্বোচ্চ কত টাকা বদল করা যাবে?

তবে রিজার্ভ ব্যাংকের তরফে খবর মিলেছে যে এক্ষেত্রে একজন গ্রাহক একবারে সর্বাধিক দশটি ২০০০ টাকার নোট ব্যাংকে বিনিময় করতে পারেন। অর্থাৎ একধাক্কায় সর্বাধিক ২০০০০ টাকা আপনি বিনিময় করে নিতে পারেন আপনার ব্যাংক থেকে।
Written by Nabadip Saha.

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *