রাজ্যে বিশেষ পরিস্থিতিতে সরকারি কর্মীদের ছুটি বাতিল, স্কুল শিক্ষকেরাও এর বাইরে নন। বিস্তারিত দেখুন।

রাজ্যের সরকারি কর্মী এবং স্কুল শিক্ষকদের বিশেষ পরিস্থিতি সৃষ্টি হবার কারণে ছুটি বাতিল করে দেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। এই নির্দেশ যেকোনো পরিস্থিতিতে মেনে চলতেই হবে প্রত্যেক কর্মচারীদের। বিশেষ কারণ না দর্শাতে পারলে কোন নতুন ছুটিও নেওয়া যাবে না। তাহলে জেনে নেওয়া যাক, কেন নেওয়া হয়েছে এই নতুন সিদ্ধান্ত, তাড়াতাড়ি জেনে নেওয়া যাক।

Advertisement

স্কুল এবং স্বাস্থ্য দপ্তরের ছুটি বাতিল করার সিদ্ধান্ত।

দোল পূর্ণিমার উৎসবে মাতোয়ারা রাজ্য প্রস্তুতি নিচ্ছে হোলি এবং সব-ই-বরাত এর আনন্দ নিতে। আর এর মধ্যেই বিশেষ আপতকালীন পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার নিয়েছে এই সিদ্ধান্ত। রাজ্যের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হতে বাকি মাত্র কয়েকদিন। অপরদিকে রাজ্যের হাসপাতাল গুলিতে অসুস্থতার খবর মিলছে চারিদিকে। এই সব কারণেই ছুটি বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে রাজ্য সরকার।

আলাদা আলাদা ভাবেই দপ্তর ভিত্তিক সিদ্ধান্ত নিয়ে জারি করা হয়েছে নির্দেশিকা। এবারে সেই নির্দেশিকা গুলি জেনে নেওয়া যাক। রাজ্যের Health Department থেকে সরকারি হাসপাতালে কর্মরত ডাক্তার সহ ক্রিটিক্যাল কেয়ারের সাথে যুক্ত শিশু বিভাগের সমস্ত কর্মী, হাসপাতাল সুপার, মেডিক্যাল অফিসারদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে সপ্তাহের শুরু থেকেই। আর এই ছুটি বাতিলের নির্দেশ বহাল রাখা হবে পরবর্তী নির্দেশ আসা পর্যন্ত।

Ads

অপরদিকে রাজ্যের মাধ্যমিক সবে শেষ হতে না হতেই সামনে আসতে চলেছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। এবারের পরীক্ষায় আগের থেকে অনেক বেশি পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। কারণ এবারে যারা উচ্চ মাধ্যমিকে অংশ নিচ্ছে তারা মহামারীর কারণে সেই বছরে হওয়া মাধ্যমিক পরীক্ষায় 100% পাশ করেছিল। তাই এবারে পরীক্ষার্থী অনেক বেশি।

Advertisement

এই ব্যাংকে একাউন্ট থাকলে আগামী 6 মাস টাকা তুলতে পারবেন না।

এছাড়া ইতিমধ্যেই রাজ্যের নিয়োগ দুর্নীতির কারণে অনেক কর্মীদের চাকরী বাতিল হয়েছে। এর ফলে স্কুল গুলিতে কর্মী ঘাটতির সমস্যা আগেই চোখে পড়েছে মাধ্যমিক পরীক্ষার সময়ে। তাই ছুটি বাতিল সংক্রান্ত বিষয়ে WBCHSE অর্থাৎ West Bengal Council of Higher Secondary Education এই বিশেষ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে।

Advertisement

দোল হলিতে Jio এর চমৎকার রিচার্জ অফার, মাত্র 1 টাকায় আনলিমিটেড ফ্রি নেট ও কলিং।

এর মধ্যেও যদি কারো বিশেষ কারণ বশত ছুটি দরকার হয়, তাহলে আগে থেকে সঠিক পদ্ধতি অবলম্বন করে ছুটির আবেদন করা যাবে। রাজ্যে আগামী 10ই মার্চ হতে চলেছে সরকারি কর্মীদের বকেয়া মহার্ঘ ভাতার দাবীতে ধর্মঘট। এর প্রচার চলছে অনেক আগে থেকেই। তবে রাজ্য সরকার এই ধর্মঘটের তীব্র বিরোধী। তাই ঐ দিনে সরকারি সমস্ত দপ্তরের একটি বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হবার আশঙ্কা রয়েছে। এমন আরও আপডেট পেতে দেখতে থাকুন সুখবর বাংলা। ধন্যবাদ।
Written by Mukta Barai.

Ads

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement