পুজোর আগে এই রাজ্য সরকারি কর্মীদের বেতন বৃদ্ধি নিয়ে কি জানালো রাজ্য সরকার।

মূলত কেন্দ্রীয় হারে বেতন বৃদ্ধি (Salary Hike) এবং বকেয়া মহার্ঘ ভাতা (Dearness Allowance) মেটানোর দাবিতে দীর্ঘ দুই বছর যাবত রাজ্য সরকারি কর্মীদের যে আন্দোলন তা এখনো পর্যন্ত চলছে। নিজেদের প্রাপ্য টুকু বুঝে নেওয়ার জন্য অবিরাম লড়াই করে চলেছেন রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা। তবে এরই মাঝে রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য সরকার জারি করল এমন এক ঘোষণা যা শুনলে তাদের মাথায় বাজ পড়বে।

Advertisement

NBSTC Workers Salary Hike News

তাদের প্রাপ্য বেতন বৃদ্ধি (Salary Hike) করা তো দূরে থাক এবার কেড়ে নেওয়া হল তাদের বেতন বৃদ্ধির সমস্ত সুযোগও। এরপর থেকে আর রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি ঘটবে না, এমনটাই সেই নির্দেশিকায় জানিয়েছে রাজ্য সরকার। আর এতে বিক্ষুব্ধ হয়ে পথে নেমেছেন আরো একবার সরকারি কর্মচারীরা। দেখা যাক এবার এই আন্দোলনের জল কতদূর গড়ায়।

গত 2019 সালে রাজ্যের পরিবহন দপ্তর একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে বলেছিল যে সেই দপ্তরে যে সমস্ত অস্থায়ী কর্মীরা (NBSTC Workers Salary) রয়েছেন তাদের কাজের মেয়াদ সর্বোচ্চ ৬০ বছর পর্যন্ত করা হবে। সেই সঙ্গে এটিও জানানো হয়েছিল যে প্রতি পাঁচ বছর অন্তর বেতন কাঠামো পরিবর্তন এবং প্রতিবছর ৩ শতাংশ (3% DA) হারে মহার্ঘ ভাতা প্রদান করা হবে। এছাড়াও অবসরের সময় এককালীন তিন লাখ টাকা দেওয়া হবে তাদের। রাজ্য সরকারের এই ঘোষণায় তখন বেশ খুশি হয়েছিলেন পরিবহন দপ্তরের সকল অস্থায়ী কর্মীরা।

Ads

সকলে ভেবেছিলেন অস্থায়ী চাকরি হলেও এতে সুবিধা কম নেই। কিন্তু সম্প্রতি এই ঘোষণার অন্যথা করেছে রাজ্য সরকার। কয়েকদিন আগেই একটি নির্দেশিকা মারফত পরিবহন দপ্তর জানিয়েছে এখন থেকে আর বেতন বৃদ্ধি ঘটবে না সেই দপ্তরের অস্থায়ী কর্মীদের। আর এই খবর শোনার পর স্বাভাবিকভাবেই ক্ষোভের আগুন জ্বলছে সকলের মধ্যে। আর এই ক্ষোভ উপড়ে দিতেই গত মঙ্গলবার তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের ডাকে পথে নামেন পরিবহন দপ্তরের অস্থায়ী কর্মীরা।

Advertisement
Festival Bonus Salary Hike (পুজোর বোনাস, বেতনবৃদ্ধি)

গত বছর বেতন বৃদ্ধির দাবি নিয়ে দক্ষিণবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন নিগমের কর্মচারীরা (NBSTC Workers) বিক্ষোভে সামিল হন। আর এ বছর দুর্গাপূজার আগে একই রকম ভাবে বিক্ষোভের ডাক দিলেন উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন ব্যবস্থার কর্মীরা। যে সকল অস্থায়ী কর্মীরা এক্ষেত্রে বিক্ষোভে নেমেছেন তাদের দাবি একটাই সরকারকে তাদের পূর্বে দেওয়া কথা রাখতেই হবে। তারা জানান তাদের কাজে কোন খামতি নেই।

Advertisement

আরও পড়ুন, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারি কর্মীদের দারুন সুখবর। পুজোর আগেই বকেয়া টাকা ঢুকে যাবে। নবান্নের নির্দেশ।

সংস্থার কর্মীরা যথেষ্ট পরিশ্রম দিয়ে কাজ করে চলেছেন। যার ফলে সংস্থার আয়ও আগের তুলনায় অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে ১৬ কোটি টাকায় পৌঁছেছে উত্তরবঙ্গ রাষ্ট্রীয় পরিবহন নিগমের আয়। কিন্তু তাদের ভালোটা কেন সরকার বুঝছেন না, এই অভিযোগ জানান তারা। গত মঙ্গলবার দিন তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের তরফ থেকে মোট 1750 জন অস্থায়ী কর্মীকে নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করা হয়। বিক্ষোভের ফলে সেদিন বন্ধ ছিল সেখানকার পরিবহন দপ্তরের অফিসগুলি।

Ads

32000 প্রাথমিক শিক্ষকদের চাকরি বাতিল মামলার বিরাট আপডেট।

এছাড়াও কর্মচারীদের বিক্ষোভের ফলে স্বাভাবিকভাবেই ব্যাহত হয় পরিবহন ব্যবস্থা। এখন তাদের অপেক্ষা এই বিক্ষোভের ফলে সরকার শেষ পর্যন্ত আদৌ নড়েচড়ে বসে কিনা। তাদের দাবি মেনে নিয়ে পরিবহন ব্যবস্থা অব্যাহত রাখার জন্য সরকার কি শেষ পর্যন্ত নিজের আগের কথা রাখতে বাধ্য হবে? সেটাই দেখতে চান তারা এখন।
Written by Nabadip Saha.

Leave a Comment

Advertisement