প্যান আধার লিংক (PAN Aadhaar Card link Update)

আগামী ৩০ শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রত্যেক একাউন্ট হোল্ডারকে PAN Aadhaar Card সংক্রান্ত একাধিক নথি জমা দিয়ে নিজের নিজের ব্যাংকে গিয়ে করতে হবে কেওয়াইসি আপডেট (KYC Update). নয়তো আর চালু রাখা হবে না তাদের একাউন্ট, সাফ জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় সরকার। দেশের যে কোন ব্যাংকের অধীনে যার অ্যাকাউন্ট থাক না কেন সকলকে সম্পন্ন করতে হবে এই প্রক্রিয়া। তবে আর দেরি না করে দ্রুত এই সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে জানুন এবং তারপর তৎক্ষণাৎ গিয়ে নিজের ব্যাংকে কেওয়াইসি জমা করে আসুন।

Advertisement

PAN Aadhaar Card KYC Update

ব্যাংকে তো আমরা সকলেই টাকা পয়সা জমা এবং লেনদেন করি। আর আমরা সকলেই জানি যে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট (Bank Account) চালু রাখার জন্য কেওয়াইসি (Know Your Customer) জমা দেওয়া বাধ্যতামূলক। কারণ কেওয়াইসি মানে হল আপনার পরিচয় পত্র আপডেট করা। এটি না করলে নির্দিষ্ট সময়ের পর বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে আপনার সেই অ্যাকাউন্ট।

তবে যদিও বর্তমান কালে প্রতি বছরই আর এই কেওয়াইসি জমা দেওয়া বাধ্যতামূলক নয়। তবুও কিছু কিছু ক্ষেত্রে PAN Aadhaar কেওয়াইসি প্রমাণপত্র চাওয়া হয় ব্যাংকের তরফ থেকে তার গ্রাহকদের কাছে। যেমন কয়েক মাস আগে ই কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছিল যে যাদের ব্যাংকে বিভিন্ন ছোটখাটো সেভিংস অ্যাকাউন্ট স্কিম রয়েছে অথবা কোন ক্ষুদ্র প্রকল্পের অধীনে টাকা পয়সা বিনিয়োগ করে থাকেন তাদেরকে আগামী ৩১ শে মার্চ ২০২৩ এর মধ্যে ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সঙ্গে নিজের আধার কার্ড ও প্যান কার্ড লিংক করাতে হবে।

Ads

না করলে কি হবে?

আর যদি কোন ব্যক্তি তা না করেন তবে বন্ধ করে দেওয়া হবে তার অ্যাকাউন্ট।
কেন্দ্রের তরফে তখন জানানো হয়েছিল যে সরাসরি ব্যাংকে গিয়ে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা যেতে পারে। তবে যেকোনো অনলাইন ক্যাফেতে গিয়েও এই প্যান ও আধার লিঙ্ক (PAN Aadhaar Link) করতে পারেন গ্রাহকরা সে ক্ষেত্রে তাদের ১০০০ টাকা আবেদন ফি হিসেবে দিতে হবে। কিন্তু অনেক মানুষই বিষয়টিকে এড়িয়ে যান।

Advertisement
RBI Cancelled Bank License (ব্যাংকের লাইসেন্স বাতিল)

তাদের উদ্দেশ্যেই এবার এই সময়সীমা বর্ধিত করে ৩০ শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করা হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে চরম হুঁশিয়ারি দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার এবং জানিয়েছে যে এই সময়সীমা লঙ্ঘন হওয়ার পর আর কোন ব্যক্তিকে সুযোগ দেওয়া হবে না। সকলের ব্যাঙ্ক একাউন্ট টার্মিনেট করে দেওয়া হবে কেওয়াইসি যদি জমা না পড়ে। তবে আপনার গচ্ছিত টাকা মার যাবেনা। সাময়িক সময়ের জন্য লেনদেন বন্ধ হয়ে যাবে, এবং এরপর PAN Aadhaar KYC জমা করার পরই লেনদেন করা যাবে।

Advertisement

কি কি নথিপত্র লাগবে?

প্রথমে নিজের ব্যাংকে গিয়ে আপনাকে ফর্ম ৬০ নিতে হবে। তারপর সেটিকে ফিলাপ করে তার সঙ্গে নিম্নলিখিত নথিগুলো একত্রিত করে জমা করতে হবে সেখানে।
পরিচয় প্রমাণ নথিঃ
১. পাসপোর্ট
২. ড্রাইভিং লাইসেন্স
৩. ভোটার আইডেন্টিটি কার্ড
৪. প্যান কার্ড আধার কার্ড (PAN Aadhaar Card)
৫. NREGA জব কার্ড

Ads

ঠিকানার প্রমাণ নথিঃ
১. বিদ্যুৎ বিল
২. গ্যাস বিল
৩. ব্যাংক হিসাব বিবৃতি
৪. ল্যান্ডলাইন বিল
৫. জীবনবীমা নীতি
৬. নিবন্ধিত ইজারা চুক্তি।
এই বিষয়ে আরও প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। এবং
আমাদের WhatsApp চ্যানেল ফলো করুন, এখানে।
Written by Nabadip Saha.

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *