Post Office MIS Scheme – পোস্ট অফিসে এককালীন কত টাকা রাখলে প্রতিমাসে কত টাকা সুদ পাবেন? হিসাব দেখে বিনিয়োগ করুন।

Post Office MIS Scheme বা Post Office Monthly Income Scheme হল আপানার সঞ্চিত টাকা লাভসহ রিটার্ন পাওয়ার এক দুর্দান্ত স্কিম। বর্তমানে এই স্কিমটি খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। আমরা বিনিয়োগ কেন করি? সঞ্চিত অর্থের ওপর বেশি পরিমাণ লাভ উঠানোর জন্য, তাই তো? যে টাকা আমরা গচ্ছিত রাখছি সেই টাকা যদি বড়সড় রিটার্ন এর সঙ্গে আমাদের কাছে ফেরত না আসে তাহলে বিনিয়োগ করে লাভ কি! বাজারে এমন অনেক সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা রয়েছে যেগুলি আপনাকে অর্থ বিনিয়োগে ভালো রিটার্নের লোভ দেখাবে।

Advertisement

Post Office MIS Scheme Monthly Interest Rate.

কিন্তু সময় শেষে দেখবেন আপনার তেমন কোন লাভই হলো না। তাহলে টাকা জমা রেখে লাভ কি? তাই এবার থেকে আর এভাবে ঠকবেন না। নিজের গচ্ছিত অর্থ যদি লাভ ওঠানোর আশায় আপনারা বিনিয়োগ করতেই চান তাহলে রয়েছে পোস্ট অফিসের এক দুর্দান্ত স্কিম। এই স্কিমে আপনি পাবেন ভালো পরিমান টাকা রিটার্ন। সঙ্গে এটি আপনাকে দেবে মান্থলি ইনকামের সুবিধা। তবে আর দেরি না করে এখনই এ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন।

Post Office MIS Scheme কী?
এম আই এস (MIS বা Post Office Monthly Income Scheme) হল পোস্ট অফিসের মাসিক আয়ের স্কিম। এই স্কিম থেকে নিয়মিত মাসিক টাকা আয় করা যায়। অর্থাৎ আপনি যে টাকা রাখলেন তার সুদ মাসে মাসে তোলার একটি বিশেষ প্রকল্প। এটি তাদের জন্য উপযুক্ত যারা মাসিক ভিত্তিতে নিয়মিত এবং গ্যারান্টি যুক্ত আয় পেতে চান। সাধারনত অবসরের পরের টাকা মানুষ এখানে রেখে থাকেন।

Ads

সুবিধা:-
১. Post Office MIS Scheme টি সরকার সমর্থিত স্কিম। তাই এখানে আপনার বিনিয়োগ করা অর্থ এর মেয়াদ কাল পর্যন্ত সম্পূর্ণ সুরক্ষিত ভাবে থাকবে।
২. Post Office MIS Scheme-এর লক ইন পিরিয়ড ৫ বছর। মেয়াদ শেষ হলে বিনিয়োগকারী বিনিয়োগ করা অর্থ তুলে নিতে পারেন কিংবা পুনরায় বিনিয়োগ করতে পারেন।
৩. Post Office MIS Scheme এর ক্ষেত্রে কোন বাজারগত ঝুঁকি নেই। তাই যে কোন মানুষ এখানে নিঃসংকোচে বিনিয়োগ শুরু করতে পারেন।

Advertisement

কে পোস্ট অফিস এম আই এস খুলতে পারবেন ?
১. শুধুমাত্র ভারতীয় বাসিন্দারাই Post Office MIS Scheme এর অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।
২. অ্যাকাউন্ট একজন প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তির দ্বারা খোলা যেতে পারে।
৩. যৌথ অ্যাকাউন্ট দুই বা তিনজন প্রাপ্তবয়স্ক দ্বারা খুলতে পারে। সমস্ত যৌথ অ্যাকাউন্টধারীর প্রতিটি যৌথ অ্যাকাউন্টে সমান অংশ রয়েছে।
৪. একজন অভিভাবক বা অভিভাবক নাবালকের নামে একটি অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন।
৫. 10 বছর বা তার বেশি বয়সের একজন নাবালক অ্যাকাউন্ট খুলতে এবং পরিচালনা করতে পারে।

Advertisement

অল্প সময়েই টাকা ডবল! পোস্ট অফিসের এই দুর্দান্ত স্কিম সাড়া ফেলেছে সারা দেশে।

Post Office MIS Scheme এ কত টাকা জমা করতে হয়?
১. ন্যূনতম টাকা জমার পরিমাণ ₹ 1000 টাকা।
২. একটি একক অ্যাকাউন্টের জন্য, সর্বোচ্চ জমার সীমা ₹ 9 লাখ টাকা।
৩. একটি জয়েন্ট অ্যাকাউন্টের জন্য, সর্বোচ্চ জমার সীমা হল ₹ 15লাখ টাকা।
৪. জমার পরিমাণ ₹1000 টাকার গুণিতকে হাওয়া দরকার।
৫. একজন ব্যক্তি MIS-এ সর্বোচ্চ ₹9 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে পারেন। জয়েন্ট অ্যাকাউন্টে ₹15 লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করতে পারবেন।

Ads
Click Here

কত সুদ পাওয়া যায়?
বিভিন্ন মেয়াদে এখানে অর্থ বিনিয়োগ করা যায়। এখানে যথাক্রমে ১, ২, ৩, ৪, ৫ বছরের মেয়াদ রয়েছে বিনিয়োগের জন্য। তবে যে কোন বছরের জন্যই আপনি বিনিয়োগ করুন না কেন সুদের হার একই থাকবে। মাসিক 7.40 শতাংশ।

পোস্ট অফিসের কোন স্কিমে কত সুদ পাবেন? কোন স্কিম সবথেকে সেরা বিস্তারিত জানুন।

সেক্ষেত্রে একজন ব্যক্তি যদি ৯ লক্ষ টাকা এখানে বিনিয়োগ করে থাকেন তাহলে তার মাসিক সুদের পরিমাণ হবে 5500 টাকা। এক বছরে হচ্ছে 66 হাজার 600 টাকা। আরেকজন ব্যক্তি যদি ১৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে থাকেন তার মাঝে সুদের পরিমাণ হবে 9250 টাকা। অর্থাৎ এক বছরে 1,11,000 টাকা।
Written by Nabadip Saha.

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement