কিষাণ বিকাশ পত্র (Post Office scheme name - Kisan Vikash Patra)

চিটফান্ড কান্ডের পর থেকে মানুষ ইনভেস্ট এর আগে নিরাপত্তা নিয়ে আগে ভাবেন। আর নিরাপত্তার দিখ দিয়ে ভাবলে Post Office scheme বা পোস্ট অফিসের সঞ্চয় প্রকল্পের নাম আগে আসে। তার মূলত ২টি কারন। প্রথমত ব্যাংকের চেয়ে একটু বেশি সুদ মেলে। এছাড়া কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনস্থ সংস্থার দরুন টাকা মার যাওয়ার ভয় নেই। অর্থাৎ চোখ বন্ধ করে এই প্রকল্পে টাকা রাখতেই পারেন।

Advertisement

তাছাড়া ব্যাংকিং ফ্রড এর মতো পোস্ট অফিসে জালিয়াতির কথা প্রায় শোনাই যায় না। তাই বর্তমানে যতই মিউচুয়াল ফান্ড বা শেয়ার মার্কেটের কথা হোক না কেন, সাধারণ মানুষ পোস্ট অফিসে টাকা রাখাই বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন।

পোষ্ট অফিসের এই প্রকল্পে টাকা রাখলেই ডবল

আর তাছাড়া পোস্ট অফিসের এমন কিছু Post Office scheme বা সঞ্চয় প্রকল্প রয়েছে, যেখানে টাকা জমা দিলেই নির্দিষ্ট সময় পর তা ডবল হয়ে যাবে। আর যে টাকা সঞ্চয় করছেন, সেই টাকা যদি ডবল হয়ে যায়, তাহলে তো কোনো কথাই নেই। অধিকাংশ মানুষ সেই প্রকল্পে টাকা বিনিয়োগ (Investment Make Double) করতে চাইবেন। এটাই স্বাভাবিক।

Ads

তাই এই মুহূর্তে আর দেরি না করে এক্ষুনি পোস্ট অফিসের এই প্রকল্পে টাকা বিনিয়োগ করুন। ৭.৫ শতাংশ হারে সুদ দিচ্ছে সরকার। ফলে টাকা নির্দিষ্ট মেয়াদে ডবল হয়ে যাচ্ছে। আর সরকারি প্রকল্প বলে নিচিন্তে চোখ বন্ধ করে এই প্রকল্পে টাকা রাখতেই পারেন। তাহলে কোন স্কিম এটি?

Advertisement
লটারি টিকিট (Lottery Ticket)

Post Office scheme name – Kisan Vikash Patra

এই স্কিমের নামঃ
কিষাণ বিকাশ পত্র (Post Office scheme name – Kisan Vikash Patra).
পোস্ট অফিসের এই সঞ্চয় প্রকল্প বা KVP বন্ডে টাকা বিনিয়োগ করলে ১১৫ মাসে দ্বিগুণ হয়ে যাবে। প্রথমদিকে ১২৩ মাস এই সময়সীমা ছিল। পরবর্তীতে কমিয়ে ১২০ মাস করা হয়। এখন আবার সেটাও কমিয়ে দিয়ে ১১৫ মাস করা হয়েছে। ফলে ১১৫ মাস সময়ের মধ্যে কিষাণ বিকাশ পত্রে টাকা বিনিয়োগ করলে সঞ্চিত টাকা ডবল হয়ে যাবে।

Advertisement

আরও পড়ুন, রেশনে বড় বদল, দেখুন কোন কার্ডে কতটা ফ্রি রেশন পাবেন।

কিভাবে বিনিয়োগ করবেনঃ

পোস্ট অফিসের যে কোনো স্থানীয় শাখায় গিয়ে যোগাযোগ করে এই KVP Bond নিতে পারবেন। কিষাণ বিকাশ পত্রে জয়েন্ট একাউন্ট (Joint Account) খোলা যায়। নমিনি করা যায় এই একাউন্টে (Nomini Facility in this Account) ১০ বছর বয়সী নাবালকের নামেও এই অ্যাকাউন্ট খোলা যেতে পারে। তবে সেক্ষেত্রে অভিভাবককে সেই একাউন্টে যুক্ত থাকতে হবে।

Ads

আরও পড়ুন, চাকরি না করেও প্রতিমাসে 12 হাজার টাকা পেনশন। নতুন পলিসি করলেই লাইফ সেট।

নুন্যতম কত টাকা বিনিয়োগ করা যায়?

Post Office scheme name – Kisan Vikash Patra এ ১ হাজার টাকা বিনিয়োগ করেই কিষাণ বিকাশপত্রের একাউন্ট খুলতে পারেন। আর যেহেতু পোস্ট অফিসে বিনিয়োগ, ফলে এটি নিরাপদ এবং নিশ্চিন্ত। ঝুঁকিমুক্ত জায়গায় বিনিয়োগ করে ১১৫ মাসের মধ্যে টাকা ডবল করতে চাইলে কিষাণ বিকাশ পত্র স্কিমে টাকা রাখতে পারেন।

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *