Primary TET Exam – টেট পরীক্ষা নিয়ে জরুরী বিজ্ঞপ্তি। এই ভুল করলে পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হবেনা। সবাই এটাই চাইছিলো।

পশ্চিমবঙ্গের প্রাইমারি টেট পরীক্ষার্থীদের (Primary TET Exam) জন্য রয়েছে আবারও একটি বড় আপডেট। চলতি বছরের টেট পরীক্ষার্থীদের চাহিদাকে গুরুত্ব দিয়ে এবার WBBPE পর্ষদ এই সিদ্ধান্ত নিল। এক নিয়মে ঘটানো হলো বদল। এই মর্মে গতকালই একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে কর্তৃপক্ষের তরফে। সেখানে যে সিদ্ধান্তের কথা উল্লেখিত রয়েছে তাতে খুশি হয়েছেন সকল টেট পরীক্ষার্থীরা। এতে তাদের বিপুল ভাবে উপকার হবে বলে মনে করে WBBPE পর্ষদ। কিন্তু কি সেই সিদ্ধান্ত? কেনই বা এত খুশি হলেন টেট পরীক্ষার্থীরা? জানতে হলে নিচে দেখুন।

Advertisement

গত দশ বছর যাবত রাজ্যে অনুষ্ঠিত হওয়া বিভিন্ন শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা কে কেন্দ্র করে ঘটেছে বিভিন্ন দুর্নীতি। এই সমস্ত নিয়ে একাধিকবার মামলা করা হয়েছে কোর্টে। কিছু মামলার রায় ঘোষণা হয়ে গেছে ইতিমধ্যেই। আর কিছু মামলা এখনো পর্যন্ত বিচারাধীন রয়েছে। তদন্ত মারফত প্রাপ্ত তথ্য এবং সাক্ষ্য প্রমাণের উপর ভিত্তি করে বিচারপতিদের ডিভিশন বেঞ্চ একের পর এক শুনানি দিয়ে চলেছে সেই সমস্ত নিয়োগ মামলার।

যার মাধ্যমে উঠে আসছে নানা রকমের চাঞ্চল্যকর তথ্য। যেমন কোনোটাতে শোনা যাচ্ছে প্রশ্ন পত্র নিয়ে দুর্নীতি হয়েছিল, আবার কোনোটাতে শোনা যাচ্ছে সঠিক প্রশিক্ষণ না থাকা সত্ত্বেও চাকরি হয়েছিল এবং আরো অনেক। যদিও নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে চাপানউতোরের মাঝেই গত বছর ১০ ই ডিসেম্বর তারিখে অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০২২ এর Primary TET Exam তথা প্রাইমারি টেট পরীক্ষা। কিন্তু সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে এই নিয়োগ প্রক্রিয়ার কাজও স্থগিত রাখা হয়েছে বর্তমানে।

Ads
মিসলেনিয়াস সার্ভিস পরীক্ষার (WBPSC Miscellaneous Exam)

আসলে গত কয়েক বছরের নিয়োগ প্রক্রিয়াই সম্পন্ন হয়নি এখনো। এখনো পর্যন্ত কোর্টে জলঘোলা চলছে এই সমস্ত নিয়োগের কেস নিয়ে। তাই এগুলির নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত নতুন কোন নিয়োগ প্রক্রিয়া হবে না বলে ধরেই নিয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। এদিকে পর্ষদ সভাপতি গৌতম পাল আগেই জানিয়েছিলেন যে বছরের দুবার প্রাইমারি টেট পরীক্ষা হবে। সেই অনুযায়ী চলতি বছরের প্রাথমিকের টেট পরীক্ষার বিজ্ঞপ্তি গত সেপ্টেম্বর মাসেই প্রকাশ করা হয়েছিল।

Advertisement

আরও পড়ুন, রাজ্যের হাসপাতালে শুধুমাত্র ইন্টারভিউ এর মাধ্যমে একাধিক শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ, দেখেনিন সম্পূর্ণ আবেদন প্রক্রিয়া।

এই পরীক্ষার দিন পর্ষদ জানিয়েছে ২০২৩ সালের ১১ই ডিসেম্বর তারিখ। তাই নিজেদের কথা রাখতে আবেদন প্রক্রিয়ার কাজ পর্ষদ শুরু করে দিয়েছিল বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হবার দু একদিন পর থেকেই। আবেদন প্রক্রিয়ার শেষ হবার কথা ছিল ৪ অক্টোবর। যদিও ছাত্র-ছাত্রীদের দাবিতে পরে তা বাড়িয়ে ৮ ই অক্টোবর করা হয়। অর্থাৎ গত দুদিন আগেই শেষ হয়েছে এই বছরের টেটের আবেদন প্রক্রিয়ার (Primary TET Exam) কাজ।

Advertisement

কিন্তু এখন আবারো একটি বিষয় নিয়ে অসুবিধা সৃষ্টি হয়েছে Primary TET Exam পরীক্ষার্থীদের মধ্যে। তাই তাদের দাবিতে এবার পর্ষদ পরিবর্তন ঘটালো আরো একটি নিয়মে যাতে চরমভাবে উপকৃত হলেন এই বছরের টেট পরীক্ষার্থীরা। যে সমস্ত টেট পরীক্ষার্থীরা তাদের আবেদন পত্র জমা করার সময় সেখানে কোন ভুল ভ্রান্তি করেছেন তাদেরকে সংশোধনের আরও একটি সুযোগ দিল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ।

Ads

আরও পড়ুন, সোশ্যাল মিডিয়ায় আর্টিকেল, ভিডিও বা রিল বানাতে পারলে সরকারি চাকরি

Primary TET Exam Notification

গতকাল ৯ অক্টোবর, সোমবার একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ প্রকাশ করেছে কর্তৃপক্ষ এই ব্যাপারে। সেখানে জানানো হয়েছে পরীক্ষার্থীদের দাবি মেনে তাদের আবেদনপত্র সংশোধন করার সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী ১০ অক্টোবর অর্থাৎ আজ বিকেল ৪:০০ পর্যন্ত তাদের এপ্লিকেশন ফর্ম এডিট করতে পারবেন আবেদনকারীরা। তবে সেইসঙ্গে পর্ষদের এটিও জানিয়েছে যে পরীক্ষার্থীদের অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে এবারে আবেদন পত্র ফিলাপ করতে হবে। কারণ এটাই হল তাদের শেষ সুযোগ। এর ফলে উপকৃত হবেন প্রচুর Primary TET Exam প্রার্থী।
আমাদের WhatsApp এ ফলো করুন।
Written by Nabadip Saha.

Leave a Comment

Advertisement