Ration Card – গরিবের রেশনে কোপ। পরিমানে কম, ফ্রী রেশন নিয়ে বড় খবর।

রেশন ব্যবস্থা হল ভারতের নাগরিকদের জন্য এক অপরিহার্য জিনিস। এই Ration Card এর উপর ভিত্তি করে অন্নসংস্থান ঘটে বহু গরিব মানুষের। বিশেষত, করোনা অতিমারির পর থেকে সরকার বিনামূল্যের রেশন ব্যবস্থা চালু করায় এর উপর আরো বেশি করে নির্ভরশীল হয়ে পড়েছেন তারা। এমন অবস্থায় যদি সেই সমস্ত গরিব মানুষদের সঙ্গে জালিয়াতি করা হয়, তাদেরকে রেশন সামগ্রী নিয়ে ঠকানো হয় তাহলে সরাসরি ভাতে মরবে সেই সমস্ত মানুষ। যদিও এই আশঙ্কাই সত্যি হল এবার। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গের কয়েকটি রেশন দোকানের বিরুদ্ধে উপভোক্তারা অভিযোগ এনেছেন রেশন সামগ্রী নিয়ে কালোবাজারি করার।

Advertisement

Ration Card Scam 2023 in West Bengal.

তাদের অনেকেরই মত সরকার নাকি তাদের Ration Card এ যতটা জিনিস পাওয়ার কথা তার থেকে ওজনে কম রেশন সামগ্রী দিয়ে বাকিটুকু নিয়ে কালোবাজারি করছে, আর এই ঘটনায় যুক্ত রয়েছেন বিভিন্ন রেশন ডিলাররা। রেশন ব্যবস্থা নিয়ে দুর্নীতির ঘটনা কোন নতুন নয়। এর আগেও বহুবার এরকম একাধিক অভিযোগ শোনা গেছে বিভিন্ন ডিলারের বিরুদ্ধে। তার প্রতিবাদও করেছেন বহু মানুষ। এমনকি এ নিয়ে বিক্ষোভও দেখা গেছে কয়েকবার।

এবারে রেশন নিয়ে এই কালোবাজারির অভিযোগ উঠেছে উত্তর ২৪ পরগনার বাগদার কনিয়ারা ২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার একটি রেশন দোকানের বিরুদ্ধে। আর এর প্রতিবাদেও বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছেন সংশ্লিষ্ট স্থানের রেশন উপভোক্তারা। ঘটনাটির সম্পর্কে জানা মাত্রই সংবাদমাধ্যম মারফত সংশ্লিষ্ট জায়গায় গিয়ে উপভোক্তাদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। সেখানে একজন স্থানীয় জানান, “এখানকার রেশন ডিলার নিবেদিতা সাধু। তবে তাঁর ছেলে শান্তনু সাধু সবটা দেখভাল করেন।

Ads

অভিযোগ, বহুদিন ধরে এই রেশন ডিলার কম Ration Card অনুযায়ী কম সামগ্রী দিচ্ছেন। তারই প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিক্ষোভ দেখান স্থানীয়রা।” অপর একজন উপভোক্তা মশিয়ার মন্ডল বলেছেন, “বহুদিন ধরে আমার Ration Card এ রেশন সামগ্রী কম দেওয়া হয়েছে। প্রতিবার আমি ১৯ কিলো করে জিনিস পাই। কারণ আমার পরিবারে চারজন সদস্য। এবারে ১৫ কিলো জিনিস দিয়েছে মোট। পরে আরো একবার দোকানে এসে স্লিপ দেখাই, কিন্তু ডিলার একটি কাগজে লিখে দেন পরে আবার দেওয়া হবে জিনিস।”

Advertisement

প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী গ্রেপ্তার হতেই পশ্চিমবঙ্গে বাতিল হলো 2 কোটি রেশন কার্ড। আরও কাদের কার্ড বাতিল

এদিকে আরেকজন জানিয়েছেন, ” আমার Ration Card এ ১৯ কেজি ৭০০ চাল পাওয়ার কথা। অথচ নিয়মিতভাবে আমাকে কম দেওয়া হচ্ছে। রেশন দোকানে এর বিরুদ্ধে নালিশ জানালে তারা বলছে আমার Ration Card নাকি ব্লকড আছে। অথচ কার্ড চেক করলে ব্লক আছে দেখাই যাচ্ছে না। কয়েক মাস ধরে এই একই ঘটনা চলছে। “রেশন নিয়ে ঠিক এমন সব অভিযোগই জমা পড়েছে সংবাদ সূত্রের কাছে। তবে রেশন দোকানের এক কর্মী শঙ্কর কর্মকারের সাক্ষাৎকারও নেওয়া হয়েছে এই বিষয়ে জানার পর।

Advertisement
Click Here

তিনি বলেছেন যে রেশন ডিলার তাকে যেমন নির্দেশ দিয়েছে সে নাকি সেই ভাবেই কাজ করেছে। তাকে যে পরিমাণ সামগ্ৰী দিতে বলা হয়েছে তিনি তো সেটাই দেবেন। অন্যদিকে রেশন ডিলার শান্তনু সাধুর কাছেও সরাসরি জিজ্ঞাসাবাদ করেন সাংবাদিকরা।তিনি বলেন যে এখন বিভিন্ন উৎসবের কারণে সরকারের তরফ থেকে রেশনের গাড়ি তেমন একটা আসছে না। আর ডিস্ট্রিবিউটাররা যদি মাল না পাঠাতে পারেন তাহলে রেশন ডিলাররাই বা কি করে দেবে জিনিস

Ads

1.5 কোটি মানুষের রেশন কার্ড ব্লক হচ্ছে! কার্ড বাঁচাতে আজই এই কাজ করুন।

যদিও এইসব ঘটনার সত্যতা যাচাই করা হয়নি এখনো। সরকারের কাছে এ ব্যাপারে অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার পর যদি বোঝা যায় সত্যিই এখানে রেশন ডিলারদের কোন দোষ নেই তবে তাদের ছাড় দেওয়া হবে। আর যদি দেখা যায় দুর্নীতি চলছে তাহলে আইন অনুযায়ী শাস্তি পাবেন দোষীরা।
Written by Nabadip Saha.

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement