মার্চ থেকেই বাড়তি রেশন পাবেন রাজ্যের 3 কোটি গ্রাহক, তবে কীভাবে! জেনে নিন একটা ক্লিক করে।

রাজ্যের মানুষকে স্বাভাবিক রেশনের সাথে সাথে এবারে মিলবে বাড়তি রেশন সামগ্রী। তবে রাজ্যের প্রত্যেকে গ্রাহক এই সুবিধা পাবেন না। নির্দিষ্ট কিছু ধরণের রেশন কার্ড ধারকেরাই পাবেন এই বাড়তি রেশন। তবে এবারে বিষয় গুলি না জানা থাকলে আপনিও হয়তো বঞ্চিত হয়ে যাবেন এই সুবিধা থেকে। এখন চলছে রমজান মাস। রোজা পালন হচ্ছে নিয়ম করে। আর এই বাড়তি রেশনের সুবিধা চলবে এক মাস ধরেই। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক বিস্তারিত প্রতিবেদনে।

Advertisement

রমজান মাসে রেশনে মিলবে বাড়তি রেশন সামগ্রী।

শুরু হয়ে গেছে রামজান মাস। এই উপলক্ষে রাজ্যের রেশন গ্রাহকদের জন্য মিলতে চলেছে বাড়তি রেশন সামগ্রী, এমনটাই ঘোষণা করা হল সরকারের তরফে। ঘোষণায় জানানো হয়েছে রাজ্য সরকারের খাদ্য ও সরবরাহ দফতরের তরফে গোটা রমজান মাসে জুড়ে  রেশন গ্রাহকদের ভর্তুকিতে চিনি, ছোলা ও ময়দা সরবরাহ করা হবে। তবে সমস্ত রাজ্যবাসী এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন না।

তাহলে কারা পাবেন এই বিশেষ সুবিধা?
যেসব রাজ্যবাসীর অন্ত্যোদয় অন্নযোজনা বা AAY এবং স্পেশাল প্রয়োরিটি হাউসহোল্ড বা SPHH আছে, কেবলমাত্র তাঁরাই রেশনিং এ এই বিশেষ সুবিধাটি পাবেন। গোটা রমজান মাস জুড়ে অর্থাৎ ২৪ মার্চ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত রেশনে এই বিশেষ খাদ্যদ্রব্যগুলি মিলবে।

Ads

পরিসংখ্যান জানাচ্ছে, রাজ্যে এই দুই শ্রেণির রেশন গ্রাহকের মোট সংখ্যা তিন কোটিরও বেশি। অন্ত্যোদয় অন্নযোজনা বা AAY এবং স্পেশাল প্রয়োরিটি হাউসহোল্ড রেশনকার্ড বা SPHH আছে, এমন পরিবারগুলিকে রমজান মাস জুড়ে চিনি, ময়দা ও ছোলা দেওয়া হবে। এর জন্য পরিবার প্রতি ১ কেজি করে চিনি দেওয়া হবে। এই চিনির জন্য ৩২ টাকা করে দাম দিতে হবে।

Advertisement

প্রতিটি পরিবার পিছু ১ কেজি করে ছোলাও পাওয়া যাবে। ছোলার জন্য কেজিতে ৪৯ টাকা দাম দিতে হবে। এরই সাথে, পরিবার পিছু ১ কেজি করে ময়দাও মিলবে। এখানে ময়দার জন্য প্রতি কেজি দাম দিতে হবে ৩০ টাকা। রমজান উপলক্ষে দেওয়া এই বাড়তি খাদ্যদ্রব্যগুলি ছাড়াও রেশনে অন্য যেসব সামগ্রী দেওয়া হয়, সেগুলি সবই পাবেন ওই দুই ধরনের কার্ড থাকা পরিবারগুলি৷

Advertisement

সাপ্তাহিক রাশিফল (27 মার্চ-২রা মার্চ, 2023) – মেষ থেকে মীন, পার্ট-1 দেখে নিন।

অন্ত্যোদয় অন্নযোজনা রেশনকার্ড থাকলে মার্চ মাসে বিনামূল্যে পরিবারপিছু ২১ কেজি করে চাল পাওয়া যাবে। সাথে মিলবে পরিবারপিছু বিনামূল্যে ১৩ কেজি ৩০০ গ্রাম করে আটা বা গম৷ দেওয়া হবে পরিবারপিছু ১ কেজি করে চিনি,তবে চিনির জন্য দাম দিতে হবে।প্রতি কেজিতে ১৩ টাকা ৫০ পয়সা করে দাম রাখা হয়েছে।

Ads

মার্কেটে নতুন এই ব্যবসা, একবার শুরু করলে খদ্দের সামলাতে পারবেন না।

অন্যদিকে, যাদের স্পেশাল প্রয়োরিটি হাউসহোল্ড রেশনকার্ড আছে, তাদের দেওয়া হবে মাথাপিছু ৩ কেজি করে চাল, মাথাপিছু ১ কেজি ৯০০ গ্রাম করে পুষ্টিযুক্ত আটা অথবা ২ কেজি গম৷ খুশির রমজানে বাড়তি রেশন সামগ্রীর সংযোজন করে রাজ্যের দরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য রাজ্য সরকারের এই প্রয়াস নিঃসন্দেহে প্রশংসাযোগ্য।
Written by Parna Banerjee.

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement