Sovereign Gold Bond – সোনা না কিনে গোল্ড বন্ডে বিনিয়োগ করুন। 1 বছরে হবে ডবল লাভ।

প্রত্যেক ব্যক্তি ব্যাংকে নিজেদের অর্থের কিছুটা সঞ্চয় করেন ভবিষ্যতের জন্য। তবে শুধু টাকা জমানোই নয়, ব্যাংকে টাকা জমানোর পাশাপাশি Sovereign Gold Bond কিম্বা সোনার গয়না জমা রেখে মোটা অঙ্কের টাকা সুদ পাওয়া যায়। আপনি কি গোল্ড বন্ড স্কিমে অন্তর্ভুক্ত হতে চান তাহলে এইতো সুযোগ কারণ এখন চলছে চতুর্থ সিরিজের সাবস্ক্রিপশন। যা আগামী 12th ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে সোভরেইন গোল্ড বন্ডের চতুর্থ সিরিজের সাবস্ক্রিপশন।

Advertisement

RBI Sovereign Gold Bond Scheme 2023-24

এর আগে রিজার্ভ ব্যাংকের পক্ষ থেকে 18th ডিসেম্বর তৃতীয় সাবস্ক্রিপশনের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। আর বি আই থেকে জানানো হয়েছিলো তৃতীয় সাবস্ক্রিপশনের সময় সোনার ইস্যু প্রাইস থাকবে প্রতি ইউনিটের জন্য 6.199 টাকা। অনেকেই এই গোল্ড বন্ড সমন্ধে এখনো তেমন কিছুই জানেন না তাদের জন্য একবার জানিয়ে রাখা ভাল গোল্ড বন্ড কি?

What is Sovereign Gold Bond?

ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক 2015 সালে প্রথম ভারত সরকার এই Sovereign Gold Bond বা সোভরেইন গোল্ড বন্ড স্কিম চালু করে। কিছু সময় পর পর গোল্ড বন্ডের সাবস্ক্রিপশন চালু করে রিজার্ভ ব্যাংক। প্রতিবার একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাবস্ক্রিপশনের মূল্য নির্ধারিত হয়ে থাকে। এই সময় ক্রেতারা পাকা সোনা না কিনে সোনার দামের উপর একটি বন্ড কেনেন। সোনার দাম অনুযায়ী এই বন্ড এ বিনিয়োগ করা হয়।

Ads

Gold as investment

একটি নির্দিষ্ট ওজনের সোনার দাম কেনা হয় এই Sovereign Gold Bond তথা গোল্ড বন্ডের মাধ্যমে যা পরে বেচে রিটার্ন পাওয়া যায়। আপনি যদি গোল্ড বন্ডের 2016-I -তে বিনিয়োগ করে থাকেন তবে এই বন্ডের মেয়াদ শেষ হতে চলেছে। তবে দারুন খবর এবার এই বন্ডে বিনিয়োগকারীদের কাছে আসতে চলেছে 141% রিটার্ন।

Advertisement

কতদিন থাকছে এই সুযোগ

12th ফেব্রুয়ারি থেকে চলবে 16th ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। আর 21st ফেব্রুয়ারি গ্রাহকরা এই Sovereign Gold Bond বা সোভরেইন গোল্ড বন্ড এ ইস্যু করার সুযোগ পাবেন।

Advertisement

মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন টানা 15 দিনের ছুটি! কারা, কীভাবে ছুটি পাবেন জেনে নিন?

কি কি সুবিধা পাওয়া যাবে

আপনি যদি অনলাইনে গোল্ড বন্ডের কেনা বেচা করে থাকেন তাহলে গ্রাম প্রতি 50 টাকা ছাড় পাবেন।
যে সমস্ত প্ল্যাটফর্মে আপনি সহজেই সোভরেইন বন্ড কিনতে পারবেন সেগুলো হলো কমার্শিয়াল ব্যাঙ্ক, ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ, বম্বে স্টক এক্সচেঞ্জ, ক্লিয়ারিং কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া ইত্যাদি।

Ads

কারা এই সুযোগ পাবেন

যে কোনও ভারতীয় নাগরিক, হিন্দু অবিভক্ত পরিবার, পাবলিক এবং প্রাইভেট ট্রাস্ট, বিশ্ববিদ্যালয়, চ্যারিটেবল ইনস্টিটিউশন চাইলে গোল্ড বন্ডে বিনিয়োগ করতে পারেন।

Old Note Sale - পুরানো নোট বিক্রি

সোনা কেনার পরিমাণ

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নিয়মে হিন্দু অবিভক্ত পরিবারের ব্যক্তি হয়ে থাকেন তাহলে ন্যূনতম 1 গ্রাম সোনা এবং সর্বোচ্চ 4 কেজি সোনা কিনতে পারবেন। তবে কোনো ট্রাস্ট একটি অর্থবর্ষে সর্বাধিক 20 কেজি পর্যন্ত সোনার মূল্যে বন্ড কিনতে পারে।

কত বছর মেয়াদ

গোল্ড বন্ডের মেয়াদ রয়েছে আট বছর। তবে আপনি চাইলে পাঁচ বছর পর এই বন্ড ভাঙতে পারেন। আসলে পাঁচ বছরের একটা লক ইন পিরিয়ড থাকে তাই চাইলে আপনি ভাঙতে পারেন। কিন্ত মেয়াদ রয়েছে আট বছরের জন্য। বন্ড ভাঙার পর যে রিটার্ন পাবেন সেটা নির্ভর করবে সোনার দামের উপর। দাম বাড়লে রিটার্ন ও বেশি পাবেন।

সোনার গয়না না কিনে গোল্ড বন্ডে বিনিয়োগ করুন। খাদ, মুজুরি, ট্যাক্স কিছু নেই। 1 বছরে টাকা ডবল।

বিনিয়োগকারী কত রিটার্ন পাবেন

ধরা যাক, একজন বিনিয়োগকারী 2016-I সিরিজে 35 গ্রাম সোনার বন্ড কিনেছিলেন। তখন সেই ব্যক্তিকে 91000 টাকা বিনিয়োগ করতে হয়েছিল। বর্তমানে এই বন্ডের প্রতি গ্রাম তথা ইউনিটের মেয়াদ উত্তীর্ণের মূল্য 6271 টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। অর্থাৎ 35 গ্রাম সোনা কেনা ব্যক্তির রিটার্নের পরিমাণ হতে চলেছে প্রায় 219485 টাকা। আপনি যদি গোল্ড বন্ডের সুদ যুক্ত না করেন, সেক্ষেত্রে পাবেন 141 শতাংশ রিটার্ন।

সুদের পরিমাণ

একটি সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, গোল্ড বন্ডের প্রথম দিকের ইস্যুর সময় বার্ষিক 2.75 শতাংশ সুদ প্রদান করা হত। বর্তমানে অবশ্য এই বিনিয়োগের ক্ষেত্রে 2.5 শতাংশ সুদ দেওয়া হয়। আপনিও যদি Sovereign Gold Bond বা সোভরেইন বন্ড এ বিনিয়োগ করতে চান এই সুযোগ কাজে লাগান। এমন আরও গুরুত্তপূর্ণ খবরের আপডেট পেতে এই পেজে ফলো করুন।

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement