TOTO Service (টোটো চালকদের নিয়ম)

এবার টোটো চালকদের (Toto Service) উদ্দেশ্যে সরকার কর্তৃপক্ষ চালু করল এক বিশেষ নিয়ম। এখন থেকে এই বিশেষ জিনিস যদি টোটো গাড়িতে না পাওয়া যায় তাহলে বাতিল করা হবে সেই টোটোর লাইসেন্স। এই বিশেষ জিনিস হল QR Code. যা এখন থেকে প্রতিটি টোটোতে থাকা আবশ্যক বলে ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার কর্তৃপক্ষ।

Advertisement

Toto Service Rules in west bengal

সূত্রের খবর অনুযায়ী, যদি কোন টোটো তে এই কোড না দেওয়া থাকে তাহলে সেই টোটো কে অবৈধ বলে বিবেচনা করা হবে। সেই স্বরূপ, যিনি সেই টোটোর চালক তার লাইসেন্স এবং সংশ্লিষ্ট এলাকায় যাত্রী পরিবহনের অনুমতি (Toto Service) দুইই বাতিল করা হতে পারে এক্ষেত্রে। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে দেখে নেওয়া যাক বিষয়টি সম্পর্কে বিশদে।

গত কয়েকদিন আগেই রাজ্যের বিভিন্ন পৌরসভা মারফত একটি ঘোষণা জারি হয়েছে। ঘোষণায় বলা হয়েছে যে এখন থেকে সেই এলাকায় যতগুলি টোটো চলাচল করবে সবাইকে ব্যবহার করতে হবে এই Unique QR Code. আর যদি কোন টোটোতে এই বিশেষ কোড দেওয়া না থাকে তবে কর্তৃপক্ষ মারফত সঙ্গে সঙ্গে তার লাইসেন্স বা টোটো চালানোর অনুমতি বাতিল করা হবে বলে জানানো হয়েছে পৌরসভার সেই ঘোষণাতে। আসলে দীর্ঘদিন ধরে টোটো এর সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে, যার নির্দিষ্ট পরিমান বা হিসাব সরকারের কাছে নেই। তাই রাস্তার যানজট নিয়ন্ত্রনে সমস্যা হচ্ছে। তাই প্রতিটি টোটোর রেজিস্ট্রেশন বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে।

Ads

এলাকার যাত্রীদের অভিযোগ জমা পড়ছে যে এলাকায় নির্দিষ্ট টোটো গুলি ছাড়াও বহু টোটো অবৈধভাবে চলাচল করতে শুরু করেছে। আর এই সমস্ত অবৈধ টোটোর সংখ্যা (Toto Service) বাড়ার ফলে স্বাভাবিকভাবেই যানজটে পড়তে হচ্ছে যাত্রীদের। তাই এবার এই সমস্যা রুখতে সংশ্লিষ্ট এলাকার পৌরসভা মারফত এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
জেলাশাসকের অনুমতিতে জেলায় প্রথম এই ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হল INTUC এবং সংশ্লিষ্ট এলাকার পৌরসভা এর যৌথ উদ্যোগে।

Advertisement
দুয়ারে সরকার (Duare Sarkar Camp)

প্রথম পর্যায়ে শহরের ৪০ টি রুটের Toto Service এই ধরনের ব্যবস্থা চালু করা হলো। কর্তৃপক্ষ মারফত জানানো হয়েছে পরবর্তীকালে এই ব্যবস্থা জেলার অন্যত্রও চালু করা হবে। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে তিনদিন ধরে চলা এই কর্মসূচির মারফত এলাকার মোট ১১০০ টি টোটোতে এই QR Code ব্যবস্থা চালু করা হবে।

Advertisement

আরও পড়ুন, রোড পারমিট কিভাবে পাবেন?

এই বিশেষ সিদ্ধান্তের ফলে একদিকে যেমন বৈধ টোটো গুলির এবং যাত্রীদের চলাচলের সুবিধা হল, তেমনি অন্যদিকে নিরাপত্তাও প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি পেল যাত্রীদের। এই QR Code স্ক্যান করে অতি সহজেই বোঝা যাবে কোনো অবৈধ টোটো ওই নির্দিষ্ট রাস্তাগুলিতে চলাচল (Toto Service) করছে কি না। পাশাপাশি টোটোর যাত্রীগণ অথবা চালক কোনো সমস্যায় পড়লে সেই কোড স্ক্যান করে যাবতীয় তথ্য নিয়ে প্রশাসনের কাছে এই বিষয়টি দাখিল করা যাবে।

Ads

আরও পড়ুন, 1.50 লক্ষ টাকা দেওয়া হবে গাড়ি চালাতে পারলে, মুখ্যমন্ত্রীর বড় সিদ্ধান্ত।

টোটো রেজিস্ট্রেশন নম্বর থেকে শুরু করে ইঞ্জিন নম্বর এমনকি মালিকের নাম ও ঠিকানা ইত্যাদি সব থাকবে এই QR Code এর মধ্যে। তাই এই কোড মারফত অতি সহজেই শনাক্তকরণ করা যাবে সেই বৈধ টোটো গুলিকে। সুতরাং এবার থেকে আর নম্বর প্লেট ছাড়া বা QR Code ছাড়া টোটো রাস্তায় চলতে পারবে না। যার জেরে বাতিল হয়ে যেতে পারে, হাজার হাজার টোটো।
Written by Nabadip Saha.

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *