টাটা স্কলারশিপ

নতুন বছরে TSDPL নামক একটি টাটা স্কলারশিপ চালু করছে টাটা কোম্পানি। এই TSDPL স্কলারশিপ এর জন্য আবেদন করলেই পড়ুয়াদের মিলবে দারুণ স্কলারশিপ। এই প্রোগ্রামে আবেদন করলে জানতে হবে আবেদন প্রক্রিয়া, যা এই প্রতিবেদনে আলোচনা করা হচ্ছে। তাহলে আর দেরি না করে কীভাবে এবং কারা এই টাটা স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদনের যোগ্য, তা জেনে নেওয়া যাক।

Advertisement

টাটা স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদন করলে আপনার পড়াশোনার খরচ চালাবে টাটা।

সম্পূর্ণ আবেদন প্রক্রিয়া জেনে নিখুঁত ভাবে আবেদন করলেই মিলবে টাটা স্কলারশিপ। এই স্কলারশিপ এর আয়োজন করেছে TSDPL যা হচ্ছে টাটা এর একটি সংস্থা। এই স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদন করলে পড়ুয়াদের উচ্চশিক্ষা নিয়ে খুব একটা ভাবতে হবে না। সমস্ত রকমের দায়িত্ব নিয়ে নেবে টাটা কোম্পানির এই সংস্থা। তাহলে জেনে নেওয়া যাক, গুরুত্বপূর্ণ তারিখ, সুবিধা, যোগ্যতার মানদণ্ড, প্রার্থী নির্বাচন পদ্ধতি, আবেদন প্রক্রিয়া, যোগাযোগের ঠিকানা সহ যাবতীয় খুঁটিনাটি বিষয়গুলি।

টাটা স্লিল কোম্পানির অধীনে চালু করা এই স্কলারশিপ সাধারণত স্বল্প আয়ের পরিবারের মেধাবী পড়ুয়াদের পড়াশোনার যাতে কোন রকমের ব্যাঘাত না ঘটে, সেই উদ্দেশ্যে চালু করা হয়েছে। এই টাটা স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদন করলে পাওয়া যেতে পারে সর্বোচ্চ 1 লক্ষ টাকা পর্যন্ত স্কলারশিপ পাবার এক দারুণ সুযোগ। যদি কেউ ITI/ডিপ্লোমা, স্নাতক অথবা স্নাতকোত্তর কোন বিষয়ে পড়াশোনায় যুক্ত থাকেন, তাহলে  এক্ষেত্রে তিনি এই টাটা স্কলারশিপ পাবার জন্য আবেদন জানাতে পারেন।

Ads

এই TSDPL অর্থাৎ টাটা স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদন জানানোর শেষ তারিখ হচ্ছে আগামী 31 শে জানুয়ারি, 2023. এক্ষেত্রে মিলছে 1 বছরের জন্য 1 লক্ষ টাকার স্কলারশিপ। তবে এই স্কলারশিপের টাকা শুধুমাত্র পড়াশোনার কাজেই ব্যবহার করা যাবে। সেক্ষেত্রে আনুসাঙ্গিক খরচ হিসেবেও এই অর্থ ব্যয় করা যাবে। এবারে জেনে নেওয়া যাক, কারা এই প্রোগ্রামে আবেদন জানাতে পারবেন। জামশেদপুর, পান্তনগর, পুনে, ফরিদাবাদ, চেন্নাই, কোলকাতা ইত্যাদি এলাকার পড়ুয়ারা এক্ষেত্রে আবেদন জানাতে পারবেন।

Advertisement

এছাড়াও আবেদনকারীকে এই টাটা স্কলারশিপ পেতে গেলে, ক্লাস 10 এবং ক্লাস 12 এর পরীক্ষায় অন্তত 60% নম্বর পেয়ে থাকতে হবে। পরিবারের বার্ষিক আয় যেন 5 লক্ষ টাকার বেশি না হয়। এছাড়া জাতিগত অর্থাৎ SC/ST সম্প্রদায়ের পড়ুয়াদের জন্য দেওয়া হবে বিশেষ ছাড়। এছাড়া যাদের খেলাধুলা সংক্রান্ত বিষয়ে থাকবে বিশেষ কোন সার্টিফিকেট, তারা এই প্রোগ্রামে পাবেন বিশেষ সুবিধা। এবারে জেনে নেওয়া যাক, কি কি ধরণের কাগজ পত্র এই TSDPL অর্থাৎ টাটা স্কলারশিপে আবেদন করার জন্য দরকার হবে।

Advertisement

মোবাইল রিচার্জের দারুণ অফার, মাসে 70 টাকার খরচে পান অফুরন্ত ইন্টারনেট আর কলিং! এখুনি দেখে নিন।

ক্লাস 10 এবং 12 মার্কশিট এবং পাসিং সার্টিফিকেট,
একটি সরকার-প্রদত্ত পরিচয় প্রমাণ (আধার কার্ড/ভোটার আইডি কার্ড),
চলতি বছরের ভর্তির প্রমাণ (ফির রসিদ/ভর্তি পত্র),
পারিবারিক আয়ের প্রমাণ,
আবেদনকারীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের বিবরণ,
সাম্প্রতিক ছবি।

Ads

এক্ষেত্রে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে সঠিকভাবে এই টাটা স্কলারশিপ পাবার জন্য আবেদন জানাতে হবে। সেক্ষেত্রে আপনাকে নিজের নাম নিবন্ধন করে নিতে হবে আগে থেকেই। এর জন্য নিজের মোবাইল নম্বর, মেইল আইডি, প্রয়োজন হবে। অনলাইন আবেদন প্রক্রিয়া ধাপে ধাপে সম্পন্ন করতে হবে। আবেদন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হলেই একটি প্রিন্ট আউট করে নিতে ভুলবেন না। নিজের যাবতীয় নথিপত্র সঠিক ভাবে স্ক্যান করে জমা করতে হবে।

মোবাইল অ্যাপে চলবে এবারের মাধ্যমিক পরীক্ষা, নতুন সিদ্ধান্ত পর্ষদের।

এই TSDPL এর টাটা স্কলারশিপ প্রোগ্রামে আবেদন সংক্রান্ত যাবতীয় সকল রকম বিষয়ে তথ্য জানতে ফোনে কথা বলতে হলে কল করে নিতে পারেন এই 011-430-92248 নাম্বারে। এমন আরও অন্যান্য স্কলারশিপ সম্পর্কে জানার থাকলে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করতে পারেন। এছাড়া আপনার মতামত জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সে। ধন্যবাদ।Written by Mukta Barai.

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *