Hasir Alo - হাসির আলো

মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা করলেন নতুন প্রকল্প Hasir Alo Scheme বা হাসির আলো প্রকল্প! এবার থেকে ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিল মকুব করবে রাজ্য সরকার! প্রতি মাসেই ইলেকট্রিক বিল এর অংকের কথা ভেবে সাধারণ মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষের কপালে চিন্তার মাঝে লক্ষ্য করা যায়। ইলেকট্রিক আমাদের দৈনন্দিন জীবনের প্রতিটি কাজের সঙ্গেই বর্তমানে জড়িয়ে পড়েছে। আমরা দৈনন্দিন জীবনচর্চায় বিভিন্ন ধরনের ইলেকট্রনিক্স দ্রব্যও ব্যবহার করে থাকি।

Advertisement

WBSEDCL 75 Unit Electric Bill Free in Hasir Alo Scheme

ফলে মাস গেলে বেশ অনেকটা মোটা টাকা ইলেকট্রিক বিল হিসেবে জমা দিতে হয়। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ইলেকট্রিক বিল জমা না দিলে আবার জরিমানার সম্মুখীন হতে হয়। তাই পকেটের টান থাকলেও যে কোনো ভাবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই ইলেকট্রিক বিল মিটিয়ে দিতে হয় সাধারণ মধ্যবিত্ত মানুষকে।

তবে এবার রাজ্যের সাধারণ মানুষদের কথা চিন্তা করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করলেন নতুন একটি প্রকল্প । সামনেই আসছে লোকসভা নির্বাচন। আর এই নির্বাচনের আগেই সাধারণ মানুষের মন থেকে ইলেকট্রিক বিল সংক্রান্ত চিন্তা গুলিকে দূর করতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইলেকট্রিক বিল সম্পর্কিত এই প্রকল্পকে এগিয়ে নিয়ে যেতে উদ্যোগী হয়েছেন।

Ads

জানা গেছে মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা করা এই Hasir Alo Scheme বা হাসির আলো প্রকল্পের মাধ্যমে এবার থেকে ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত সমস্ত বিদ্যুৎ বিল মুকুব করে দেবে রাজ্যের বিদ্যুৎ বিভাগ। স্বাভাবিকভাবেই এতে সাধারণ দরিদ্র রাজ্যবাসীর কাঁধ থেকে বিদ্যুতের বিলের বোঝা অনেকটাই হালকা হবে।

Advertisement

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চালু করা বিশেষ এই প্রকল্পটির নাম হল Hasir Alo Scheme বা হাসির আলো প্রকল্প। ২০২০ সালে মুখ্যমন্ত্রী প্রথম চালু করেছিলেন এই প্রকল্প। সে সময় এই প্রকল্পের অধীনে কিছু মানুষের ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুতের বিল মুকুব করে দেওয়া হয়।

Advertisement

Hasir Alo Scheme বা হাসির আলো প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের যে সব পরিবার গুলি ০.৩ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ খরচ করে তাদের ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুৎ পরিষেবা বিনামূল্যে প্রদান করবে রাজ্য। পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বিদ্যুৎ পরিষেবা অনুসারে প্রতি ৩ মাস অন্তর রাজ্যবাসীর বাড়িতে বাড়িতে পৌঁছে যায় বিদ্যুতের বিল।

Ads

সে ক্ষেত্রে সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে Hasir Alo Scheme বা হাসির আলো প্রকল্পের অধিনে তিনমাস পর যদি দেখা যায় কোনো পরিবারের ৭৫ ইউনিট বা তার কম বিদ্যুৎ খরচ হয়েছে তবে সেই সব পরিবারের সম্পূর্ণ ইলেকট্রিক বিল এর টাকাটি মুকুব করে দেওয়া হবে সরকারের তরফ থেকে।

পোস্ট অফিসের এই স্কিমে 2000 টাকা বিনিয়োগ করুন আর মোটা অংকের টাকা রিটার্ন পেয়ে যান

এছাড়াও সরকারের তরফ থেকে বলা হয়েছে যদি কোনো পরিবারের বিদ্যুৎ খরচ ৭৫ ইউনিটের থেকে বেশি হয় সেক্ষেত্রে ৭৫ ইউনিট এর উপর যতটুকু ইউনিট বেশি হয়েছে শুধু সেই পরিমাণ বিলের টাকা তাকে প্রদান করতে হবে। রাজ্যের আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া মানুষরাই এই প্রকল্পের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল মকুব এর সুবিধা উপভোগ করতে পারবেন।

E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন

এছাড়াও সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে সব ব্যক্তিদের অন্ত্যোদয় অন্ন যোজনা বা বিপিএল ক্যাটাগরির রেশন কার্ড আছে তারাও এই Hasir Alo Scheme বা হাসির আলো প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধা পাওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন। সরকারের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যদি কোন ব্যক্তি এই প্রকল্পের সুবিধা গ্রহণ করতে চান তবে প্রথমেই তাকে যেতে হবে বিদ্যুতের অফিসে।

পশ্চিমবঙ্গবাসীদের 5 লাখ টাকা দিচ্ছে রাজ্য সরকার। ছেলে মেয়ে সকলেই আবেদন করতে পারবেন।

তার নিকটবর্তী যে বিদ্যুতের অফিসের মাধ্যমে তিনি ইলেকট্রিক সংযোগ লাভ করছেন, সেই অফিসে গিয়ে একটি আবেদন পত্র (Hasir Alo Scheme) গ্রহণ করতে হবে। এই আবেদন পত্রটি সঠিক তথ্য দিয়ে পূরণ করার পর তা জমা করে দিলেই আবেদন প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন হবে এবং তার আবেদন গ্রাহ্য হলে এই সুবিধাটি তিনি পেতে শুরু করবেন।

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *