WB TET Scam – পশ্চিমবঙ্গে টাকা দিয়ে যারা শিক্ষকতার চাকরি পেয়েছেন তাদের তালিকা সহ চার্জশিট জমা পড়লো।

পশ্চিমবঙ্গে দুর্নীতির অভিযোগে চাকরি গেছে ৩২০০০ শিক্ষকের, ঝুলে আছে বহি নিয়োগ। আর WB TET Scam তথা পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষক দুর্নীতিতে কারা টাকা দিয়ে চাকরি পেয়েছেন, তাদের তালিকা সমেত চার্জশিট জমা দিলো কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা CBI ও ED. এই লিস্ট যদি গ্রহণযোগ্য হয়, এবং প্রমান মেলে তবে চাকরি নিয়ে সত্যি সত্যিই বড় প্রশ্ন চিহ্ন এসে যাবে।

Advertisement

WB TET Scam case

অবৈধ কাজ করা এবং তাতে মদত দেওয়া, দুটোই অপরাধ হিসেবেই গণ্য করা হয়। শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় ইতিমধ্যেই গ্রেফতার হয়েছেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী, প্রাক্তন আমলা থেকে শুরু করে একাধিক রাজনৈতিক নেতা এবং শিক্ষা দপ্তরের বেশ কিছু আধিকারিক, যারা মিডল ম্যান হিসেবে কাজ করেছেন। কিন্তু এরপরই প্রশ্ন উঠছে, যারা চাকরি পাওয়ার জন্য লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েছেন, তারা কি কোনোভাবেই দোষী নন?

শিক্ষকের চাকরি নেওয়ার জন্য টাকা দিচ্ছেন যারা, তারা কি সম্পূর্ণ নির্দোষ? অবৈধ উপায়ে টাকার বিনিময়ে চাকরি যোগাড় করছেন, ফলে তিনিও অপরাধী হিসেবেই গণ্য হবেন। এবার হাইকোর্টের বিচারপতিও সেই নির্দেশ জারি করলেন। তিনিও জানতে চান, যারা টাকা দিয়ে শিক্ষকের চাকরি পেয়েছেন, তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে? শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি মামলার (WB TET Scam Teachers Recruitment Scam) তদন্ত করছে সিবিআই। এবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই এর উদ্দেশ্যে বিচারপতির প্রশ্ন, যারা টাকার বিনিময়ে চাকরি পেয়েছেন, তাদেরকে শুধু সাক্ষী হিসেবে দেখানো হচ্ছে কেন? তারা কেন অভিযুক্ত নন?

Ads

সিবিআই এর তরফে আদালতে WB TET Scam চার্জশিট জমা দেওয়া হয়েছে। আর এবার আদালত সেই চার্জশিট গ্রহণ করেছে। কুন্তল ঘোষ, তাপস মন্ডল এবং নীলাদ্রি ঘোষের বিরুদ্ধে নথিজাল, চক্রান্ত, প্রতারণা সহ একাধিক ধারায় সিবিআই এর তরফে চার্জেশিট দাখিল করা হয়েছে। এর আগে প্রাইমারি TET দুর্নীতি,SSC গ্রুপ সি, গ্রুপ ডি, নবম দশম শিক্ষক নিয়োগ এর মত একাধিক মামলায় ৭টি চার্জশিট দাখিল করা হলেও আদালত গ্রহণ করেনি।

Advertisement

আরও পড়ুন, ফের ছুটি পড়তে চলেছে রাজ্যের স্কুলগুলিতে, কতদিন থাকবে ছুটি।

তবে এবারের চার্জশিট (WB TET Scam Chargesheet) আদালত গ্রহণ করেছে। আদালতে শুনানি শুরুর ৪০ মিনিট আগে সিবিআই এর সিটের ডিআইজি (CBI SIT DIG) অশ্বিনী সেনভি এবং সিবিআই এর দুর্নীতি দমনশাখার ডিআইজি (CBI Anti Corruption Branch DIG) জয়দেবন বিচারপতির ঘরে গিয়ে আলাদা করে বৈঠক করেন। সেখানে বিচারপতি জানতে চান, চাকরিপ্রার্থীদের নামের তালিকা কি রয়েছে?

Advertisement
click here png 1

সিবিআই এর আইনজীবী তাতে সম্মতি জানান। বিচারপতির প্রশ্ন, যারা টাকা দিয়ে চাকরি নিয়েছেন, তাদেরকে সাক্ষী হিসেবে কেন দেখানো হচ্ছে? কেন WB TET Scam অভিযুক্ত হিসেবে নয়? এই প্রশ্নের জবাবে সিবিআই এর সিটের ডিআইজি এবং সিবিআই এর দুর্নীতি দমন শাখার ডিআইজি বলেন, টাকা দিয়ে চাকরি পাওয়া প্রার্থীদের সংখ্যা অনেক বেশি। তাহলে তো অনেককে গ্রেফতার করতে হবে।

Ads

ফের ছুটি পড়তে চলেছে রাজ্যের স্কুলগুলিতে, কতদিন থাকবে ছুটি।

এরপরেই বিচারক বলেন, কাদের সাক্ষী হিসেবে দেখাবেন, আর কাদের অভিযুক্ত হিসেবে দেখাবেন, সেটা ঠিক করে নিন। এভাবে তো সবাইকে ছেড়ে দেওয়া যায় না। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা তো নিতেই হবে।
ফলে এবার যারা টাকার বিনিময়ে চাকরি নিয়েছিলেন, তাদের বিরুদ্ধেও সিবিআই এর তরফে পদক্ষেপ করা হতে পারে বলেই জানা যাচ্ছে।

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement