Primary TET এর ঘুষ দেওয়া শিক্ষকদের ডাক পড়ছে CBI দপ্তরে, 2014 – 2021 লিস্ট সহ হাজিরার নোটিশ।

নিয়োগ দুর্নীতির তদন্তে CBI এর নজর এবার Primary TET নিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষকদের দিকে। তাই একের পর এক শিক্ষকদের তলব করা হচ্ছে, জেরা করা হচ্ছে। বিভিন্ন জেলার প্রাথমিক শিক্ষকদের ডেকে পাঠানো (CBI Call Teachers for Interrogation) হচ্ছে। আর এই প্রথম Primary TET মামলা নিয়ে শিক্ষকদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Advertisement

WBBPE Primary TET case CBI interrogation

সিবিআই দপ্তরে ডেকে পাঠিয়ে সেই সমস্ত শিক্ষকদের জিজ্ঞাসাবাদ করে জানতে চাওয়া হচ্ছে, ওই শিক্ষকেরা কিভাবে চাকরি পেয়েছিলেন? শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির বহু অভিযোগ রয়েছে। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা দায়ের হয়েছে। চলছে হাইকোর্টে মামলা (Teachers Recruitment Court Case) একের পর এক শুনানি, আর সিবিআই আর ইডির তদন্ত।

এটা এখন ধারাবাহিক প্রক্রিয়া হয়ে গিয়েছে। বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ হচ্ছে। ইতিমধ্যেই Primary TET মামলায় প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী, আমলা, রাজনৈতিক নেতা থেকে শুরু করে সম্প্রতি বেশ কিছু শিক্ষকও জেলবন্দী রয়েছেন। এবার কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার নজরে শিক্ষকেরা।

Ads

কিভাবে ওই শিক্ষকেরা চাকরি পেলেন?

২০১৪ সালের পর নিয়োগ পেয়েছেন যে সমস্ত শিক্ষকেরা, তাদেরকেই মূলত ডেকে পাঠানো হচ্ছে। মুর্শিদাবাদ, বাঁকুড়া জেলার পর এবার কোচবিহার জেলার প্রাথমিক শিক্ষকদের নিজাম প্যালেসে ডেকে পাঠানো হয় সিবিআই এর তরফে। সেখানে কোচবিহার জেলার ৩১ জন শিক্ষক সিবিআই এর সামনে হাজির হন। এরা ২০১৮ সালে চাকরিতে জয়েন করেছিলেন। তাদের Primary TET সার্টিফিকেট, সার্ভিস বুক, রেজাল্ট, Other Govt.Documents খতিয়ে দেখেন CBI অফিসাররা। তারপরেই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

Advertisement

শিক্ষকদের কাছে জানতে চাওয়া হয়, তারা চাকরি নেওয়ার জন্য কারো সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন কিনা। কাউকে টাকা দিয়েছেন কিনা। কোচবিহার জেলার ওই ৩১ জন শিক্ষক নিজাম প‍্যালেসে সিবিআই এর জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হয়ে সম্পূর্ণ জবাব দেন। প্রায় আড়াই ঘণ্টা জেরা চলার পরে নিজাম প্যালেস থেকে বেরিয়ে যান কোচবিহারের শিক্ষকেরা।

Advertisement
Primary Teacher Recruitment - প্রাইমারী টেট পাশ

কলকাতা হাইকোর্ট ২৬৮ জন শিক্ষকের চাকরি বাতিলের নির্দেশ দিয়েছিল। শীর্ষ আদালত সেই নির্দেশে স্থগিতাদেশ দিয়ে পুনরায় সেই শিক্ষকদের চাকরিতে বহাল করে। শিক্ষা দপ্তরের নির্দেশে সেই শিক্ষকেরা ফের চাকরি করছেন। এই ২৬৮ জন শিক্ষকদের তালিকায় কোচবিহার জেলার ৩২ জন শিক্ষক রয়েছেন।

Ads

আরও পড়ুন, স্বাধীনতা দিবসে অনলাইন কেনাকাটায় বাম্পার সেল অফার, জলের দামে কি কি মিলবে?

তার মধ্যে 31 জন শিক্ষককে নিজাম প‍্যালেসে সিবিআই ডেকে পাঠায়। আর একজন শিক্ষক ওই জেলা থেকে অন্যত্র বদলি হয়ে গিয়েছেন। প্রয়োজনে শিক্ষকদের ফের ডাকা হতে পারে বলেই সিবিআই সূত্রে জানা যাচ্ছে।
শুধু তাই নয়, বহু নামের তালিকা CBI অফিসে জমা পড়েছে। প্রয়োজনে সেই তালিকা অনুযায়ী ধাপে ধাপে আরও শিক্ষকদের ডাকা হবে।

আরও পড়ুন, রেশনে বড় বদল, জেনে নিন এবার থেকে কোন কার্ডে কতটা ফ্রি রেশন পাবেন।

Leave a Comment

Advertisement