মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের জরুরী নির্দেশ। পরীক্ষার্থী ও শিক্ষকদের এই নিয়ম মানতেই হবে।

মাধ্যমিক পরীক্ষা নিয়ে নতুন এক নিয়ম জারি করল পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ (WBBSE). এবার থেকে আর কাজে কোন অবহেলা করতে পারবে না স্কুলগুলি। অফিস কর্মীদের কাজ করতে হবে মন দিয়ে। আর যদি কোন রকম রিপোর্ট জমা পরে স্কুলগুলোর বিরুদ্ধে তবে কর্মীদের অবহেলার দাম দিতে হবে স্কুল কর্তৃপক্ষকেই, জানাল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। এই মর্মে কিছুদিন আগেই রাজ্যের সমস্ত মাধ্যমিক বিদ্যালয় গুলিকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে নোটিশও পাঠিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ।

Advertisement

মাধ্যমিক পরীক্ষার নিয়ম বদল।

অনেক সময় দেখা যায় যে ছাত্র-ছাত্রীদের কোন সার্টিফিকেট তৈরির জন্য স্কুল কর্তৃক যে তথ্য সংগ্রহ করা হয় সার্টিফিকেটে (Madhyamik Exam) সেই তথ্যের সঙ্গে গরমিল থাকে। যেমন অনেক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেটে অথবা পরীক্ষার অ্যাডমিট কার্ডে অনেক সময় তথ্যের ভুল ত্রুটি হয়। আর স্কুলের অবহেলার জন্যই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সার্টিফিকেটে তথ্য ভুল আসে ছাত্রছাত্রীদের।

যার ফলস্বরূপ সেই তথ্য সংশোধন করতে ১০০০ টাকা চার্জ দিতে হয় ছাত্রছাত্রীদের অথবা তার পরিবার কে। কিন্তু পর্ষদ ঘোষণা করেছে এখন থেকে এই চার্জ কাটা হবে স্কুলের ফান্ড থেকে। কারণ তারা মনে করেন যে স্কুলের অফিস কর্মীদের কাজে যথাযথ মনোযোগ না থাকার জন্যই বেশিরভাগ সময় এরকম ভুল হয়। তাই এখন থেকে যদি কোন ছাত্র-ছাত্রীর সার্টিফিকেটে তথ্য ভুল আসে তবে শাস্তি স্বরূপ স্কুলকেই দিতে হবে সেই সংশোধনের চার্জ, সেই ছাত্র বা ছাত্রীর পরিবারকে নয়।

Ads
Holiday Vacation (ছুটি ঘোষণা)

এই ব্যাপারে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, “কিছু স্কুলের উদাসিনতার জন্য ভুল থেকে যাচ্ছে। প্রায় ১০০-র উপরে স্কুলে লগ ইন পর্যন্ত হচ্ছে না। তাদের জন্য তো পড়ুয়ারা ক্ষতিগ্রস্থ হবে। তাই কোনও যদি ফি থাকে, তাহলে সেই ফি স্কুলকেই বহন করতে হবে। ছাত্র ছাত্রীরা বা তাদের অভিভাবকরা কেন দেবেন? তথ্য স্কুলের কাছে আছে। আর সেটা যথাযথ সময়ে পূরণ করা দায়িত্ব স্কুলের।”

Advertisement

পশ্চিমবঙ্গে 12000 প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি। জেনে নিন আবেদনের

তিনি আরও বলেন, “আমরা রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট (Madhyamik Exam) দিয়ে দিয়েছি। তার সঙ্গে যদি কোনো ভুল থাকে তবে সেজন্য আমরা সংশোধনের উইন্ডো ১০ দিন বাড়িয়েছি। কিন্তু তারপরেও যদি দেখা যায় তথ্যে ভুল আছে, তাহলে সংশ্লিষ্ট পড়ুয়ার ৪টে সার্টিফিকেট পরিবর্তন করতে হয়।

Advertisement

আরও পড়ুন, 99 টাকায় জওয়ান সিনেমা দেখুন।

কিন্তু আমরা সেই জায়গায় যাব কেন? তার আগেই তো বিষয়টি সংশোধন করব। যেখানে স্কুলের ভুল-ত্রুটি আছে, সেটা স্কুলকেই বহন করতে হবে। ছাত্র ছাত্রীদের কাছে সেটা কোনওভাবেই দিয়ে দেওয়া উচিত নয়। সেটা আমরা চাইও না।”
Written by Nabadip Saha.

Ads

Leave a Comment

Advertisement