পশ্চিমবঙ্গে মহার্ঘ ভাতা নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ ঘোষণা, কর্মীদের দোষেই এতদিন DA পাননি, কারন জেনে নিন।

বর্তমানে বকেয়া ডিএ বা মহার্ঘ ভাতা পশ্চিমবঙ্গের অন্যতম আলোচ্য বিষয়। সংবাদপত্র থেকে টেলিভিশনের নিউজ চ্যানেল সব যায়গায় এই নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। আর ডিজিটাল সংবাদ মাধ্যমে প্রায় প্রতিদিন একের পর এক কপি উঠছে। আর প্রতিদিনই রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া DA বা মহার্ঘ ভাতা নিয়ে আন্দোলনের ঝাঁঝ বাড়ছে। একটাই দাবি তাদের, বকেয়া Dearness Allowance দিতে হবে।

Advertisement

মহার্ঘ ভাতা কেন পাননি জানেন আসল কারন?

কেন্দ্রীয় হারে DA দিতে হবে রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের। আর সেই লক্ষ্যে কাজকর্ম বন্ধ করে একের পর এক আন্দোলন বিক্ষোভ সংগ্রাম অবস্থান চলছে। কর্মসূচি ঘোষণা হচ্ছে একেবারে লাইন দিয়ে। পঞ্চায়েত ভোটের Panchayat Election মুখে চাপ বাড়াতে চাইছেন সরকারের উপর। আদালতেও আইনি লড়াই করছেন তারা।
সরকারি কর্মচারীদের একাংশের তৈরি সংগঠন যৌথ সংগ্রামী মঞ্চের তরফে ইতিমধ্যেই কলকাতার শহীদ মিনার চত্বরে অবস্থান বিক্ষোভ চলছে। যদিও রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ওই বিক্ষোভে সিপিএমের কর্মী সমর্থকরা উপস্থিত রয়েছেন বলে জানিয়েছেন।

আন্দোলনের জেরেই পশ্চিমবঙ্গের বকেয়া মহার্ঘ ভাতা নিয়ে বিরাট ঘোষণা

পাশাপাশি, একাধিক মন্ত্রী এবং তৃণমূল নেতৃত্বের তরফে রাজ্যে এই আন্দোলন চলার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের বকেয়া টাকা দেওয়ার জন্য সেখানেও দরবার করার কথা বলা হয়েছে রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের। ফলে একেবারেই জটিল পরিস্থিতি।
আর এর মধ্যেই যৌথ সংগ্রামী মঞ্চের তরফে একের পর এক কর্মসূচি ঘোষণা হচ্ছে। লক্ষ্য একটাই, রাজ্য সরকারের উপর চাপ বাড়িয়ে বকেয়া মহার্ঘ ভাতা আদায় করা। এর মধ্যেই সরকারি কর্মচারীরা হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, রাজ্য সরকার যদি তাদের দাবি না মানে, তাহলে ভবিষ্যতে আরো বড় আন্দোলনের পথে যাবেন তারা।

Ads

আগামী মার্চ মাসে বৃহৎ আন্দোলনের হুশিয়ারিও দেওয়া হয়েছে। ২০১৬ সাল থেকে বকেয়া ডিএ নিয়ে আইনি লড়াই চলছে। কলকাতা হাইকোর্ট এই মামলায় বকেয়া মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার নির্দেশ দিলেও রাজ্য সরকারের তরফে সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করা হয়। সেই আবেদনের শুনানি আগামী ১৫ই মার্চ হবে সুপ্রিম কোর্টে।
আর এর মধ্যেই আন্দোলন সংগ্রামের পথ বেছে নিয়েছেন সরকারি কর্মচারীরা। আগামী ১৩ ই ফেব্রুয়ারি রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা পূর্ণদিবস কর্মবিরতি One Day Strike পালন করবেন।
১৭ ই ফেব্রুয়ারি বিধানসভা অভিযান করবেন তারা। আগামী সোমবার সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের নেতৃত্বে বকেয়া ডিএ এবং কেন্দ্রীয় হারে DA এর দাবিতে পূর্ণ দিবস কর্মবিরতির ডাক দেওয়া হয়েছে।

Advertisement
PM Poshan Mid Day Meal (মিড ডে মিল)

জরুরী পরিষেবা ছাড়া সরকারি কর্মচারীরা এই পূর্ণদিবস কর্মবিরতি পালন করবেন। এর আগে ২ ফেব্রুয়ারি ২ ঘন্টার কর্মবিরতি তারা পালন করেছিলেন। আর তারপরেই শুক্রবার দুপুর ২টোয় সুবোধ মল্লিক স্কোয়ার থেকে বিধানসভা অভিযান শুরু হবে। রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা বকেয়া ডি এর দাবিতে বিধানসভার দিকে এগিয়ে যাবেন।
তারপরে লিখিত স্মারকলিপি রাজ্যপালের কাছে তারা জমা দেবেন। দেখা যাচ্ছে, ধীরে ধীরে তাদের আন্দোলন সংগ্রামের পরিধি আরো বাড়াতে চলেছেন সরকারি কর্মচারীরা। এবার দেখার বিষয়, এই আন্দোলন সংগ্রামকে তীব্রমাত্রায় নিয়ে গিয়ে বকেয়া DA বা মহার্ঘ ভাতা আদায়ের দাবি তারা পূরণ করতে পারেন কিনা।

Advertisement

বছরে দুবার ডিএ দেবে সরকারি কর্মীদের, বিরাট ঘোষণা মমতা ব্যানার্জির।

এদিকে রাজ্য সরকার জানাচ্ছে, আর্থিক অবস্থার জন্য ডিএ দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। অন্যদিকে কর্মীরা আন্দোলনের পথ বেছে নিয়েছে। যৌথ মঞ্চের পক্ষ থেকে সমস্ত কর্মীদের এই কর্মসূচী সফল করার আহবান জানানো হয়েছে। কিন্তু এই আন্দোলনে শুধুমাত্র রাজনৈতিক দলের সমর্থকেরাই নাকি আছেন, জানিয়েছেন খোদ কলকাতার মেয়র। আর তাই দল মত নির্বিশেষে কর্মীদের স্বতঃস্ফূর্ত যোগদান আশা করছেন আন্দোলনরত কর্মীরা। তাদের বক্তব্য, অনেকেই ভাবছেন, সবাই পেলে আমরাও পাবো, আর এই ধারনাই এতদিন বকেয়া মহার্ঘ ভাতা পাওয়ার রাস্তা আরও দীর্ঘ করে তুলছে। তাই কর্মীদের সকলকে আহবান করেছেন তারা। কার্যত কর্মীদের সকলে না আশাও এই আন্দোলন কে মলিন করে রেখেছে। এই বিষয়ে মতামত নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

Ads

সুখবর বাংলা

1 thought on “পশ্চিমবঙ্গে মহার্ঘ ভাতা নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ ঘোষণা, কর্মীদের দোষেই এতদিন DA পাননি, কারন জেনে নিন।”

  1. আপনি যেটা বলেছেন একে বারে ঠিক । যদি সমস্ত কর্মচারী এক সাথে আন্দোলন করেন তবেই সরকারের টনক নড়ে উঠবে।

    Reply

Leave a Comment

Advertisement