Dearness Allowance – পশ্চিমবঙ্গের বকেয়া ডিএ নিয়ে বড় খবর। পুজোর আগেই।

কবে পাওয়া যাবে বকেয়া মহার্ঘ ভাতা (Dearness Allowance)? কবে সুপ্রিম কোর্টে বকেয়া ডিএ মামলাটির শুনানি শুরু হবে? আদৌ কি বকেয়া ডিএ পাওয়া যাবে? দীর্ঘদিন ধরে বকেয়া Dearness Allowance-এর দাবিতে কার্যত হতাশ হয়ে পড়া রাজ্য সরকারী কর্মী তথা DA আন্দোলনকারীদের অক্সিজেন যোগানোর খবর এলো।

Advertisement

West Bengal Dearness Allowance news

একদিকে DA আন্দোলনকারীদের সাপোর্ট করছেন বিজেপি, কংগ্রেস, সিপিএমের মতো রাজ্যের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলো। অন্যদিকে বহুদিন ধরেই একপ্রকার কাজকর্ম ছেড়ে কলকাতায় শহীদ মিনারের পার্শ্ববর্তী এলাকায় অবস্থান বিক্ষোভ চালিয়ে যাচ্ছেন Dearness Allowance এর দাবীতে আন্দোলনকারী সংগঠন সংগ্রামী যৌথ মঞ্চ। বহু ধর্মঘট, কর্মবিরতি, ডিজিটাল স্ট্রাইক করার পরেও পূর্ণ দাবী মেটেনি। তাছাড়া দিল্লি ছোটাছুটিও ব্যর্থ হয়েছে।

আর এই মুহূর্তে বকেয়া ডিএ মামলা সুপ্রিম কোর্টের বিচারাধীন রয়েছে। ১৪ ই জুলাই মামলাটির শুনানি হওয়ার কথা থাকলেও সেটা হয়নি। ওই মামলার দীর্ঘ শুনানির প্রয়োজন রয়েছে বলে বকেয়া ডিএ মামলা পিছিয়ে দেওয়া হয়। এখনো পর্যন্ত যা খবর সুপ্রিম কোর্টে নভেম্বর মাসের আগে বকেয়া DA মামলাটি শুনানির জন্য ওঠার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

Ads

West Bengal DA Hike

আর এখানেই বকেয়া ডিএ এর দাবিতে আন্দোলনকারী রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের একাংশের সংগঠনের তরফে রীতিমতো হতাশা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তবুও আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে তারা। একটাই আশা, সুপ্রিম কোর্টে তাদের জয় হবে। এই প্রসঙ্গে সরকারি কর্মচারী পরিষদের তরফে জানানো হয়েছে, কবে সুপ্রিম কোর্টে বকেয়া Dearness Allowance মামলার শুনানি হবে, সেটি এখনো জানা যাচ্ছে না। তবে নভেম্বর মাস নাগাদ শুনানি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কারণ অক্টোবরের শেষে এবং নভেম্বরের শুরুতে বহু ছুটি রয়েছে।

Advertisement

DA আন্দোলনকারী আরেক সংগঠন ইউনিটি ফোরামের তরফে বলা হচ্ছে, সুপ্রিম কোর্টে যেদিন DA মামলার শুনানি হবে, সেদিন জয় আসবে। আপাতত সেই দিনের অপেক্ষাতেই দিন গুণছেন তারা। পাশাপাশি, সংগ্রামী যৌথ মঞ্চের তরফে বলা হচ্ছে, যেহেতু সুপ্রিম কোর্ট দিয়ে Dearness Allowance মামলাটি বিচারাধীন তাই শীর্ষ আদালতের রায়ের অপেক্ষায় রয়েছেন তারা।

Advertisement
ছুটি (Holiday)

কলকাতা হাইকোর্টের তরফে বকেয়া DA মামলায় রাজ্য সরকারকে ৩ মাসের মধ্যে সরকারি কর্মীদের DA মিটিয়ে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই নির্দেশ পুনর্বিবেচনার জন্য রাজ্য সরকারের তরফে আদালতে আবেদন করা হয়। তবুও একই রায় বহাল রাখে হাইকোর্ট। তারপরেই কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশকে চ্যালঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে এসএলপি (SLP) দায়ের করে রাজ্য সরকার। সেই ডিএ মামলার শুনানি এখনো পর্যন্ত সুপ্রিম কোর্টে শুরু হয়নি। চলতি বছরের জুলাই মাসে মামলাটি শুনানির জন্য উঠলে তা ফের ৩ থেকে ৪ মাস পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়।

Ads

আরও পড়ুন, আধার কার্ড নিয়ে ভয়ঙ্কর নির্দেশ মোদী সরকারের, এই কাজ না করলে সাবসিডি পাবেন না।

যদিও রাজ্য সরকারি কর্মীরা আশা করছেন পুজোর আগেই রাজ্য সরকার একপ্রস্থ DA ঘোষণা করতে পারে। কারন ইতিমধ্যেই কেন্দ্র সরকার আরও ৪% ডিএ ঘোষণা করেছে, এবং সেই পথে হেটে আরও একাধিক রাজ্য ডিএ ঘোষণা করেছে। যদিও একথা সত্য, পশ্চিমবঙ্গে ডিএ ঘোষণার আগে থেকেই কার্যত আগাম কয়েকবার ঘোষণা হয়। কিন্তু গত সপ্তাহেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ডিএ নিয়ে এক মন্তব্যে কার্যত ইতিবাচক কোনও ইঙ্গিত দেননি।

আরও পড়ুন, সোমবার থেকে বাড়ছে সবজি ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম। কি কি দাম বাড়বে, জেনে নিন।

বরঞ্চ কেন্দ্র সরকার ঠিক ভোটের আগে কর্মীদের ডিএ ঘোষণা করে, এবং প্রকল্পের টাকা দিয়ে কর্মীদের খুশি করছেন এই অভিযোগ তোলেন। তাই এই মুহুর্তে পুজোর আগে Dearness Allowance এর আশায় কার্যত নিস্ফলা হতে পারে। তবে পুজোর আগে ডিএ ঘোষণা হলে সেক্ষেত্রে সরকারি কর্মীদের জন্য খুসির বার্তা বয়ে আনবে। এই বিষয়ে আপনার মতামত, নিচে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement