How to create Whatsapp Channel, How to make money from whatsapp channel

বিভিন্ন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট কেমন facebook, whatsapp, WhatsApp Channel, twitter, instagram ইত্যাদি তো আমরা সকলেই ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু এগুলিকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে যে আমাদের কত উপকার হয় তা আমরা অনেকেই জানিনা। তাই এই সমস্ত সাইটে অযথা সময় নষ্ট করতেই আমরা বেশি পছন্দ করি। তবে আজ আমরা যে গোপন ট্রিক সম্পর্কে আলোচনা করতে চলেছি সেটি জানার পর আপনাদের আর এইসকল সাইট অন্য কারণে ব্যবহার করতে ইচ্ছাই করবেনা।

Advertisement

How to create a WhatsApp Channel

আজ আমরা এখানে কথা বলব হোয়াটসঅ্যাপ থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় সে বিষয়ে। আমরা সকলেই জানি হোয়াটসঅ্যাপে একটি নতুন ফিচার এসেছে হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেল নামে। এই চ্যানেলগুলিকে কাজে লাগিয়েই মানুষজন ইনকাম করার বিভিন্ন উপায় খুঁজে বের করা শুরু করেছে। এবং অনলাইন ফিডব্যাক মারফত জানা গেছে এই সমস্ত চ্যানেল থেকে অনেকেই নাকি ইতিমধ্যে আয় করেছেন লক্ষ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।

How to make money from whatsapp channel

বিশ্বে যেহেতু whatsapp এর বিলিয়নেরও অধিক ব্যবহারকারী তাই একবার যদি সঠিকভাবে WhatsApp Channel কে কাজে লাগানো যায় তাহলে ইনকাম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে অনেকটাই। তবে ভাববেন না যে সরাসরিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় এই হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেল থেকে। আসলে এখানে রয়েছে কিছু গুরুত্বপূর্ণ উপায়, যেগুলির জন্য আপনারা হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেল ব্যবহার করে টাকা উপার্জন শুরু করতে পারেন।

Ads

How to earn money from WhatsApp Channel

১. নেটওয়ার্ক মার্কেটিংঃ
বর্তমানের ইন্টারনেটের দুনিয়ায় নেটওয়ার্ক মার্কেটিং হল একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় আয়ের উৎস। ঘরে বসে যেকোনো ধরনের প্রোডাক্ট অনলাইনে এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিয়ে আপনি সহজেই বিক্রয় করতে পারেন নিজের স্থানীয় এলাকায় অথবা দূরদূরান্তে। এছাড়াও বিভিন্ন প্রসিদ্ধ কোম্পানির থেকে এজেন্সি নিয়েও আপনি বিজ্ঞাপন প্রচার করে সেই প্রোডাক্ট গুলি বিক্রি করতে পারেন।

Advertisement

এতে লাভের উচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যবসার প্রোডাক্টগুলির সম্পর্কে আমরা যদি হোয়াটসঅ্যাপে চ্যানেল খুলে সেখানে পোস্ট দিতে পারি তাহলে অনেক মানুষই সেই জিনিসগুলো কিনতে আগ্রহী হবেন। আর এইভাবে ইনকামও হবে প্রচুর। যার চ্যানেলে ফলোয়ার যত বেশি তার ইনকামের সম্ভাবনাও তত বেশি হবে।

Advertisement
Click Here

২. বিজ্ঞাপন বিক্রিঃ
বিভিন্ন কোম্পানিগুলি অনেক সময় তাদের প্রোডাক্টসের জনপ্রিয়তা বাড়ানোর জন্য বিভিন্ন ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচার করে থাকে। সেই বিজ্ঞাপন যদি কিনে নিয়ে আপনি WhatsApp Channel এর মাধ্যমে শেয়ার করেন তাহলে অনেক লোক সেটিকে দেখতে পাবে। আর এই জন্য সেই কোম্পানি অর্থাৎ যার বিজ্ঞাপন আপনি প্রচার করছেন তার তরফ থেকে আপনাকে কমিশন দেওয়া হবে। আপনার চ্যানেল থেকে ওই বিজ্ঞাপনের ভিজিটরদের সংখ্যা যত বৃদ্ধি পাবে, আপনার কমিশনও বৃদ্ধি পাবে।

Ads

আরও পড়ুন, ChatGPT Api এর মাধ্যমে ঘরে বসে কিভাবে টাকা রোজগার করবেন?

৩. অনলাইন ওয়ার্কসপ ও ক্লাসঃ
আজকাল অনলাইনে ওয়ার্কশপ এবং ক্লাস করে অনেকেই টাকা উপার্জন করেন। ইউটিউব এরকম হাজারো চ্যানেল আছে যারা এইভাবে লাখপতি হয়ে উঠেছে। আপনি যদি কোন বিষয়ে ভালোভাবে শেখাতে পারেন তাহলে সেই ভিডিও বানিয়ে পোস্ট করুন নিজের WhatsApp Channel এ। এইভাবে সেখানে ফলোয়ার্স এবং সাবস্ক্রাইবার যত বাড়বে তত আপনার আয়ও বৃদ্ধি পাবে। আপনি যত জনকে শেখাবেন সেই মতো হিসাব করে তাদের থেকে অনলাইনে নিজের fees নিতে পারেন।
আমাদের WhatsApp চ্যানেল ফলো করতে এখানে ক্লিক করুন।
Written by Nabadip Saha.

আরও পড়ুন, শুধুমাত্র মোবাইল দিয়ে ইউটিউব চ‍্যানেল করে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করার সহজ পদ্ধতিটা জেনে নিন

Advertisement
One thought on “WhatsApp Channel – হোয়াটসঅ্যাপ চ্যানেলের মাধ্যমে প্রতি মাসে 30000 টাকা আয় করার সহজ উপায়।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *