Post Office Franchise : বিনামুল্যে পোস্ট অফিসের ফ্র্যাঞ্চাইজি নিয়ে প্রতিমাসে কমপক্ষে 30000 টাকা ইনকাম করুন Free Offer.

Post office franchise : বাড়িতে বসেই পোস্ট অফিসের সাথে ব্যবসা করুন। অষ্টম শ্রেণী পাশেই করা যাবে আবেদন। জানুন বিস্তারিত

সংসারে একজন মাত্র রোজগেরে ব্যক্তি। তবে মাসিক বেতনও তেমন পাওয়া যায় না (Post office franchise)। সংসার চালাতে হিমশিম খেতে হচ্ছে। সাথে সন্তানের উচ্চশিক্ষা নিয়েও চিন্তিত? তাহলে পোস্ট অফিস ফ্র্যাঞ্চাইজির ব্যবসা শুরু করতে পারেন। সরকারী প্রতিষ্ঠানের নিরাপত্তা এবং প্রতি মাসে আয়ও দারুন।

Advertisement

অনেকেই অফিসে গিয়ে টানা ৯টা ৫টা কাজ করতে পছন্দ করেন না। তারা বাড়িতে বসে ফ্রিল্যান্সিং (Post office franchise) এর কাজ করে থাকেন। তারাও এই ব্যবসার সাথে যুক্ত হয়ে প্রতি মাসে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত রোজগার করতে পারেন। কিভাবে সম্ভব? তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক।

বর্তমানে ভারতে ১.৫৫ লক্ষ পোস্ট অফিস রয়েছে। স্ট্যাম্প ডিউটি, মানি অর্ডার সহ স্টেশনারি জিনিস পাঠানোর মতন বিভিন্ন কাজও পোস্ট অফিসের মাধ্যমে হয়ে থাকে। সাধারণ মানুষও পোস্ট অফিসে (Post office franchise) সুদ বেশি এবং নিরাপত্তার কারণে স্মল সেভিংস করে থাকেন। শহরের বিভিন্ন জায়গায় পোস্ট অফিস থাকলেও অনেক প্রত্যন্ত গ্রামে এখনো এই পরিষেবা দেওয়া সম্ভব হয়নি।

Ads

প্রসঙ্গত, এই পরিষেবার বিস্তার ঘটাতে সরকার নতুন পরিকল্পনা করেছে। সেই কারণে পোস্ট অফিস ফ্র্যাঞ্চাইজির ব্যবসা (Post office franchise) করতে দিচ্ছে সরকার। পোস্ট অফিসে কত ধরণের ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকে তা জানেন কি? দুই ধরণের ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকে। একটি হলো পোস্টাল এজেন্ট ফ্র্যাঞ্চাইজি। অপরটি হল ফ্র্যাঞ্চাইজি আউটলেট।

Advertisement

ফ্র্যাঞ্চাইজি আউটলেট কি-
যে সমস্ত জায়গায় পোস্ট অফিস এখনো পর্যন্ত গড়ে ওঠেনি সেখানে ফ্র্যাঞ্চাইজি আউটলেট (Post office franchise) নেওয়া যেতে পারে। ইন্ডিয়া পোষ্টের মাধ্যমে সকল পরিষেবা দেওয়া হবে। আপনিও এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন, তবে তার জন্য কি কি করতে হবে তা জেনে নিন।

Advertisement

ফ্র্যাঞ্চাইজির ব্যবসা শুরু করতে গেলে কি কি প্রয়োজনীয় –
১) যদি কোনো ব্যক্তি ফ্র্যাঞ্চাইজি আউটলেটের ব্যবসা শুরু করার কথা ভেবে থাকেন, তবে পোস্টাল এজেন্ট ফ্র্যাঞ্চাইজির তুলনায় কম টাকা বিনিয়োগ করতে হবে।
২) ব্যক্তির বয়স ১৮ বছরের ঊর্ধ্বে হতে হবে।
৩) অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।
৪) অষ্টম শ্রেণী পাশের সার্টিফিকেট থাকতে হবে।
৫) কমপক্ষে ২০০ স্কোয়ার ফিট জায়গা থাকতে হবে পোস্ট অফিস খোলার জন্য।

Ads

উল্লেখ্য, এই সমস্ত বিধি মেনে চলার পর ব্যক্তিকে ইন্ডিয়া পোস্ট এর সঙ্গে মৌখিক স্বাক্ষর করতে হবে। এরপর সিকিউরিটি ডিপোজিট হিসেবে পোস্ট অফিসের ফ্র্যাঞ্চাইজি নিতে গেলে ৫,০০০ টাকা জমা করতে হবে।

ফ্র্যাঞ্চাইজির মাধ্যমে কত টাকা উপার্জন করা যাবে –
একবার পোস্ট অফিসের ফ্র্যাঞ্চাইজি (Post office franchise) নেওয়ার পর প্রতি স্পিড পোস্ট থেকে ৫ টাকা এবং প্রতি মানি অর্ডার থেকে ৩-৫ টাকা উপার্জন করা যাবে। এছাড়াও স্টেশনারি এবং পোস্টাল স্টাম্প থেকে ৫% কমিশন পাওয়া যাবে।

কিভাবে বিনামূল্যে আধার এনরোলমেন্ট সেন্টার ফ্রাঞ্চাইজি খুলে রোজগার করবেন। জানতে হলে ক্লিক করুন

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, অন্যান্য পরিষেবা দেওয়ার মাধ্যমে পাওয়া যাবে কমিশন। বিনিয়োগকারীরা পোস্টাল (Post office franchise) ডিপার্টমেন্ট এর রিটেল পরিষেবার থেকে ৪০% আয় করতে পারবেন। এছাড়াও প্রতিমাসে ১০০০ টি রেজিস্ট্রি এবং স্পিড পোস্ট এর মাধ্যমে ২০% অতিরিক্ত কমিশন পাওয়া যাবে।

তাহলে দেরি কিসের আপনিও যদি চান এই ব্যবসা করতে হলে অবশ্যই পরিকল্পনা করে ফেলুন। এই সম্পর্কিত অন্যান্য খবরের আপডেট পেতে হলে অবশ্যই ফলো করতে ভুলবেন না এই ওয়েবসাইটটি।
WRITTRN BY MANIKA BASAK

আরও পড়ুন, এই সপ্তাহে যারা Jio তে আনলিমিটেড প্ল্যান রিচার্জ করবে, ১০০ টাকা ছাড় পাবে, Cashback

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement