Panchayat Election – পঞ্চায়েত ভোটের জন্য কোন এলাকায় কত দিনের ছুটি থাকবে, পঞ্চায়েত, পুরসভা ও করপারেশন কোথায় কবে ছুটি?

WB Panchayat Election – পঞ্চায়েত ভোটের জন্য কয়দিন ছুটি থাকবে? বিস্তারিত জেনে নিন।

আগামী শনিবার সমগ্র রাজ্যে পঞ্চায়েত ভোট আর WB Holiday বা রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে ছুটি নিয়ে সমগ্র রাজ্যবাসীর মনে নানান প্রশ্ন জাগছে। কারণ আমরা সকলেই জানি যে লোকসভা, বিধানসভা, পৌরসভা বা পঞ্চায়েত এই সকল ভোটের আয়োজন সরকারি বিদ্যালয় গুলিতেই সব সময় হয়ে থাকে এবং অনেক সরকারি অফিস বা দফতরও এই কাজের জন্য নেওয়া হয়। এই কারণের জন্য কিছু দিনের জন্য কিছু দিনের জন্য সকল প্রকারের পড়াশোনা ও কাজকর্ম ব্যহত হয়।

Advertisement

আর এই কারনে Panchayat Election এর জন্য কোন এলাকায় কোন অফিস ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কত দিন ছুটি থাকবে, জেনে নিন।
এই কারণের জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারের অর্থ দফতরের (Finance Department Of West Bengal) তরফে নির্দেশিকা (Memorandum) জারি করে রাজ্যের কোন কোন স্থানে ঠিক কতো দিনের জন্য ছুটি থাকতে চলেছে সেই সম্পর্কে সকলকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে (WB Holiday).

রাজ্যের মোট ২০ টি জেলায় এই পঞ্চায়েত ভোটের আয়োজন হতে চলেছে। এই ছুটি শুধুমাত্র পঞ্চায়েত এলাকার স্কুল ও অফিস গুলির ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য। তবে বিশেষ ক্ষেত্রে ছুটির তারতম্য রয়েছে।

Ads

পঞ্চায়েত এলাকার অফিস ও স্কুলের জন্যঃ

  • স্কুল বা অফিস পঞ্চায়েত এলাকায় হলে ভোটের আগের দিন ও ভোটের দিন ছুটি থাকবে।
  • স্কুলে পুলিশ বা নিরাপত্তা রক্ষীদের ক্যাম্প হলে এক সপ্তাহ আগে থেকেই ছুটি।
  • ভোটের পরও নিরাপত্তারক্ষীরা থাকলে প্রতিষ্ঠান ছুটি থাকবে।
  • পুনরায় ভোট হলেও ছুটি থাকবে।
  • পঞ্চায়েতে বাড়ি হলে তার অফিস পুরসভায় হলেও তিনি Panchayat Election এর দিন ছুটি পাবেন।

পুরসভা এলাকার জন্য

  • ভোটের দিন স্কুল ও সরকারি অফিস খোলা থাকবে।
  • স্কুল বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান DCRC হলে একদিন আগে থেকে ভোটের পরদিন পর্যন্ত ছুটি থাকবে।
  • ভোটের কাজে স্কুলে নিরাপত্তা রক্ষীরা থাকলে ছুটি থাকবে।
  • কর্মীর বাড়ি পুরসভায় এবং অফিস পঞ্চায়েতে হলেও তার ছুটি থাকবে।

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে কোন পঞ্চায়েত এলাকায় বসবাসকারী নাগরিক যদি পৌরসভা এলাকায় কর্মরত হন তাহলে কি তিনি ছুটি পাবেন। তার মূল ঠিকানা যেহেতু পঞ্চায়েত এলাকাতে তাই ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য Panchayat Election এর দিন তিনি অতিরিক্ত ছুটি পাবেন।

Advertisement

কোচবিহার, আলিপুরদুয়ার, জলপাইগুড়ি, উত্তর দিনাজপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর, মালদা, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, নদিয়া, উত্তর ২৪ পরগণা, দক্ষিণ ২৪ পরগণা, হাওড়া, হুগলী, পূর্ব বর্ধমান, পশ্চিম বর্ধমান, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, পূর্ব মেদিনীপুর এই সকল জেলায় এই ছুটি (WB Holiday) থাকতে চলেছে। গ্রাম পঞ্চায়েত এর সঙ্গে সঙ্গে জেলা পরিষদেরও ভোট হবে। কিন্তু রাজ্যের শহরাঞ্চলে Panchayat Election এর কোন প্রভাব পড়ার কথা নেই বললেই চলে।

Advertisement
Teacher Recruitment (শিক্ষক নিয়োগ)

এবারে জেনে নেওয়া যাক স্কুল বন্ধ রাখার কারণ সম্পর্কে কি জানতে পাওয়া যাচ্ছে, সকল স্কুল বাস ভোট কর্মীদের নিয়ে যাওয়া আসা করার জন্য নিয়ে নেওয়া হয় বিভিন্ন জায়গায় এই কারণের জন্য ৭ তারিখ বিভিন্ন স্কুল বন্ধ করে রাখা হয়েছে। কলকাতার কিছু নামকরা বিদ্যালয় গুলির তরফে জানানো হয়েছে বাস না চললেও বিদ্যালয় খুলে রাখা হবে। এছাড়াও কিছু কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পরীক্ষা বাতিল করে কিছু দিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে।

Ads

আরও পড়ুন, প্যান কার্ড চালু নাকি বন্ধ, চেক করুন ঘরে বসে, জেনে নিন পদ্ধতি।

এই সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি অফিস গুলি বন্ধ রাখার পেছনে সরকারের মূল উদ্দেশ্য হল সকল নাগরিকরা যাতে নিজেদের গণতান্ত্রিক অধিকার (Fundamental Rights) এর প্রয়োগ সফল ভাবে করতে পারে। এছাড়াও Panchayat Election ভোটের জন্য যেই সকল পুলিশ স্টেশন, স্কুল বা অন্য কোন ধরণের সরকারি প্রতিষ্ঠান ব্যবহার করা হবে সেই সকল স্থানেও ভোটের দিন ও আগের ও পরের দিন ছুটি থাকবে।

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement