বিদ্যুৎ বিলের মেসেজ পেয়েছেন! এই কাজ না করলে কারেন্ট লাইন কেটে দেবে!

রাজ্যে বিদ্যুৎ বিল নিয়ে অসন্তোষ প্রায় প্রত্যেক রাজ্যবাসীর। প্রতি মাসে ইলেকট্রিক বিল না দিয়ে 3 মাস অন্তর বিলিং করার ফলে বেড়ে যাচ্ছে বিল। স্ল্যাব বিলের আওতায় পড়ে যাওয়ায় বিল বেড়ে যাচ্ছে অজান্তেই। তবে এবারে বিদ্যুৎ বিলের এই মেসেজ যদি আপনি এখনো না পেয়ে থাকেন, তাহলে সতর্কতা গ্রহণ করুন এখুনি। বাঁচতে হলে দেখে নিন এই প্রতিবেদন।

Advertisement

বিদ্যুৎ দপ্তর বা Electricity Department এর বিদ্যুৎ বিল SMS দেখলেই বিভ্রান্ত হবেন না।

বিদ্যুৎ দপ্তরের মেসেজ দেখলেই অনেকে চমকে যান। মনে তৈরি হয় বিল নিয়ে একটা আতঙ্ক। এছাড়া অনেকেই সঠিক সময়ে জমা করেন না বিদ্যুৎ বিল। এই সব কারণেই মেসেজ দেখেই এদিক ওদিক বিবেচনা না করেই এই চরম ভুল করে ফেলেন। তাই কোন কিছু করার আগে ভালো করে বিষয়টি যাচাই করে নিতে হবে।

বর্তমানে বিভিন্ন ধরণের UPI পেমেন্ট অ্যাপ্লিকেশন থাকে প্রায় সকলের মোবাইলেই। এর ফলে এমন কিছু তথ্য আছে যার খোঁজ পেয়ে যান দুষ্কৃতীরা। সেই সকল সাধারণ তথ্যগুলি ব্যবহার করেই তারা তাদের সিস্টেম থেকে Fraud SMS পাঠায়। আর সেই সকল বিদ্যুৎ বিলের মেসেজগুলি বিভ্রান্তির কারণ হিসেবে উপনীত হয়।

Ads

খবর অনুযায়ী, সম্প্রতি এমনই ঘটনার স্বীকার হয়েছেন এদেশের বেঙ্গালুরু রাজ্যের বেশ কিছু বাসিন্দা। তাদের মোবাইলে পাঠানো হয়েছে ভুয়ো মেসেজ তথা Fraud or Scam SMS. কি কি লেখা থাকছে বিদ্যুৎ দপ্তরের নাম করে পাঠানো সেই মেসেজে? কল করেই বা তারা কি কি কথা বলছেন গ্রাহকদের? আসুন জেনে নেওয়া যাক।

Advertisement

মেসজে লেখা হচ্ছে যে, বিদ্যুৎ দপ্তরের থেকে তারা একটি সতর্কীকরণ মেসেজ পাঠাচ্ছেন। একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ টাকা লিখে বলা হচ্ছে বিদ্যুৎ বিল বাকি থাকার কথা। বিশ্বাসযোগ্যতা অর্জনের নিমিত্তে এও বলা হচ্ছে যে, বিল পরিশোধ না করলে বিদ্যুৎ দপ্তরের অফিসের লোক বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেবে খুব তাড়াতাড়ি। এতেই বিভ্রান্ত হচ্ছেন জনগণ।

Advertisement

এরপর করা হচ্ছে কল। সেখানে বলা হচ্ছে, এই মুহূর্তে টাকা জমা না করলে Disconnection Notice প্রিন্ট করে লাইন কাটার জন্য বাড়ি পাঠানো হবে বিদ্যুৎ দপ্তরের কর্মীদের। পেমেন্টের অপশন দেওয়া হচ্ছে সাথে সাথেই। পেমেন্ট রিকোয়েস্ট পাঠানো হচ্ছে সাথে সাথেই। সেক্ষেত্রে সেই রিকোয়েস্ট Accept করলেই সব শেষ।

Ads

2 সপ্তাহের জন্য বন্ধ সমস্ত ব্যাংক পরিষেবা। সারা দেশে নির্দেশিকা জারি। আগে জেনে সতর্ক হন।

আপনার ব্যাংক একাউন্ট থেকে কেটে নেওয়া হবে টাকা যা বিদ্যুৎ দপ্তরের নাম করে হাতিয়ে নেবে সেই সকল দুষ্কৃতীরা। এভাবেই সম্প্রতি হারালো লাখ লাখ টাকা। এই নিয়ে সাইবার ক্রাইম ব্র্যাঞ্চে মামলা দায়ের করেছেন তারা। তবে এর সমাধান কি হয় সেটাই দেখার। তবে সাধারণ মানুষ যাতে এই ধরণের বিপদে না পড়েন, সেই সব কারণেই আমাদের আজকের এই প্রতিবেদন।

কিভাবে নিজেকে বাঁচাবেন এদের থেকে?
এই ধরণের কোন রকম মেসেজ বা ফোন কল যদি আসে তাহলে বিভ্রান্ত হবেন না। তাদেরকে বলুন যে, আপনি আপনার স্থানীয় বিদ্যুৎ দপ্তরের অফিসে গিয়েই বিষয়টি সাম্লে নেবেন। এছাড়া আপনি এও বলতে পারেন যে আপনার একাউন্টে ব্যালেন্স নেই। আবার এও বলতে পারেন যে, আপনি আগে ঐ ধরণের পেমেন্ট অ্যাপ ব্যবহার করলেও এখন আর ব্যবহার করেন না। বা আপনি ঐ ধরণের অ্যাপ ব্যবহারই করেন না।

করোনা বাড়ছে, ফের কি লকডাউন? আপাতত নাইট কার্ফু ও স্কুল বন্ধ? জরুরী বৈঠক নবান্নে।

সাবধানতা রেখে চলুন। এছাড়াও চাকরী, ব্যবসার আইডিয়া, সরকারী প্রকল্প, স্কুল, কলেজ, মাধ্যমিক সাজেশন, রাশিফল সংক্রান্ত নানা বিষয়ে আপডেট পেতে ভিজিট করতে পারেন আমাদের ওয়েবসাইট। আপনার মতামত জানান কমেন্ট বক্সে। সকলকে বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে শেষ করছি আজকের প্রতিবেদন। ধন্যবাদ।
Written by Mukta Barai.

Leave a Comment

Advertisement