Mobile Id Card – প্রত্যেক মোবাইলের জন্য দেওয়া হবে আলাদা আইডি নম্বর। লিংক না করলে ফোনে নেটওয়ার্ক থাকবে না।

মোবাইলের জালিয়াতি ও গ্রাহকদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সকল মোবাইল ব্যবহারকারীদের অভিন্ন Mobile Id Card দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে টেলিকম নিয়ন্ত্রক সংস্থা বা TRAI.
বর্তমানে পৃথিবীর প্রায় সকল মানুষের হাতেই রয়েছে অ্যানড্রয়েড মোবাইল। আপনারও কি রয়েছে? এবং আপনি কি ভারতের বাসিন্দা? তাহলে একটি গুরুত্বপূর্ণ সূচনা রয়েছে আপনার জন্য। সম্প্রতি ভারত সরকার এক নতুন নিয়ম জারি করেছে দেশে। সমস্ত অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারীদের কাছে থাকতে হবে এক বিশেষ ধরনের Mobile Id Card কার্ড।

Advertisement

Mobile Id Card for every Android users

কারণ, এই কার্ডে যে নম্বর দেয়া থাকবে, তার সাহায্যে সরকার সহজেই আইডেন্টিফাই করতে পারবে যে কোন স্মার্টফোনকে। আর যারা যারা এই কার্ড করতে এড়িয়ে যাবেন, তাদের স্মার্ট ফোন নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে ভারত সরকার। এই Mobile Id Card এর পেছনে সরকারের উদ্দেশ্য হলো একটি, ট্র্যাকিং ব্যবস্থাকে আরো উন্নত করে বিভিন্ন সাইবার দুর্নীতির হাত থেকে মানুষকে রেহাই দেওয়া।

তাই যে সমস্ত স্মার্ট ফোন ব্যবহারকারীরা এই বিশেষ ধরনের কার্ড (Mobile Id Card) করাবেন না, তাদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার কথা বলা হয়েছে সরকারের তরফে। স্মার্ট ফোন ছাড়া বর্তমানের দুনিয়া অচল। তাই যদি কোন কারনে আপনার ফোন বন্ধ করে দেওয়া হয় তাহলে সমস্যার তো শেষ থাকবে না, তাই না। কিন্তু চিন্তা করবেন না, আপনাকে সব কিছু বুঝিয়ে বলার জন্যই আজকের এই প্রতিবেদন।

Ads

বর্তমানে দুনিয়ায় প্রযুক্তিবিদ্যার উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে একদিকে যেমন বিভিন্ন কাজ সহজতর হয়েছে তেমনি অন্যদিকে অনেক দুর্নীতিতেও ছেয়ে গেছে চতুর্দিক। বিশেষত সাইবার ক্রাইমের প্রকোপ প্রচুর পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে বর্তমানে। এমতাবস্থায় দেশের মানুষকে নিরাপত্তা দেওয়া তো সরকারেরই কাজ। এই কারণেই ভারতের টেলিকমিউনিকেশন ডিপার্টমেন্ট এর পক্ষ থেকে নতুন এই নিয়ম চালু করা হয়েছে।

Advertisement

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন লাইসেন্স প্রাপ্ত এলাকায় তাদের স্মার্ট ট্র্যাকিং ব্যবস্থার সাহায্যে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা প্রদান করে থাকে এই সংস্থা। যদি কোন জাল সিম কার্ড বা স্মার্ট ফোন ধরা পড়ে তাহলে দ্রুত তার লাইসেন্স বাতিল করা হয় এই ব্যবস্থার মাধ্যমে। কিন্তু নতুন এক ধরনের Mobile Id Card কার্ড চালু হবার ফলে দেশের সর্বত্র প্রতিটি স্মার্টফোনের গতিবিধি নজরে রাখা সম্ভব হবে কর্তৃপক্ষের।

Advertisement
আধার কার্ড (Aadhaar Card update)

TRAI বা টেলিকম নিয়ন্ত্রন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী আয়ুষ্মান ভারত যোজনার কার্ডে যেমন ১৪ ডিজিটের একটি নম্বর দেয়া থাকে, ঠিক তেমনভাবে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য চালু করা এই কার্ডেও থাকবে ১৪ ডিজিটের একটি নম্বর। আপনার কতগুলি স্মার্টফোন রয়েছে, সেগুলি কোথায় রয়েছে, বা কতগুলি সিম কার্ড রয়েছে এবং কোথায় সেই সিম কার্ডগুলি একটিভ রয়েছে, স্মার্টফোনের লাইসেন্স রয়েছে কিনা, সিম কার্ড বৈধ কিনা ইত্যাদি সব খুঁটিনাটি জানা যাবে এই ইউনিক আইডেন্টিটি নম্বর 9(Mobile Id Card) এর মাধ্যমে।

Ads

আরও পড়ুন, অসাবধান হলেই বিপদ। আধার কার্ডের তথ্য সুরক্ষিত করতে এই কাজ এক্ষুণি করুন।

আপনি যখন কোন নতুন মোবাইল কিনবেন বা নতুন সিম কার্ড (SIM Card) এর জন্য আবেদন করবেন তখন আপনাকে এই কার্ড প্রদান করা হবে। তবে তার আগে বিভিন্ন তথ্য যেমন আপনার নাম, বয়স, আধার নম্বর, ইনকামের তথ্য, মুখের ছবি, আঙ্গুলের ছাপ ও অন্যান্য বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ইনফরমেশন সংগ্রহ করা হবে। তারপর আপনি হাতে পাবেন সেই ইউনিক আইডেন্টিটি নম্বর।

আরও পড়ুন, ঘরের লাইট জ্বালালেই শ্যামা পোকার উপদ্রব? জেনে নিন শ্যামা পোকা তাড়ানোর উপায়।

বর্তমানে অ্যান্টি সাইবার ক্রাইম সিস্টেমকে আরো উন্নত করার দিকে জোর দেওয়া হচ্ছে সরকারের পক্ষ থেকে। উল্লেখযোগ্য, গত ৬ মাসে, DoT ফেসিয়াল রিকগনিশন প্রযুক্তির সাহায্যে সনাক্ত করা ৬.৪ মিলিয়নেরও বেশি জাল সিমকার্ড সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে। নতুন ইউনিক মোবাইল আইডি নম্বরের সাহায্যে এই প্রক্রিয়াকে আরও ত্বরান্বিত করা যাবে এবং সাধারণ মানুষ প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাবে।
Written by Nabadip Saha.

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement