WBBSE – মাধ্যমিক রেজাল্টে নয়া পদ্ধতি, কি জানালো পর্ষদ! কতদিনে ফলাফল, জেনে নিন।

রাজ্যের বোর্ড, WBBSE কর্তৃক সপ্রতি মাধ্যমিক পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। তবে পরীক্ষা হলেই তো আবার নতুন চিন্তা শুরু হয়ে যায় সবার মধ্যে। রেজাল্ট কবে দেবে, কত পাবে – এই সমস্ত চিন্তা ঘুরতে থাকে মনের মাঝে। এবারে এই পরীক্ষার রেজাল্ট নিয়েই রাজ্যের WBBSE অর্থাৎ মধ্যশিক্ষা পর্ষদ জানিয়ে দিয়েছে তার সিদ্ধান্ত। চলুন তবে আর দেরি না করে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

Advertisement

রাজ্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, WBBSE সব দিক বিবেচনা করেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মার্চের ৩ তারিখে সদ্য শেষ হয়েছে WBBSE মাধ্যমিক পরীক্ষা। তবে এরই মধ্যে ফলপ্রকাশ প্রক্রিয়া দ্রুততর করতে ইতিমধ্যেই চিন্তা ভাবনা শুরু করে দিয়েছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে, এই বছর থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়ন প্রক্রিয়ার ২টি ধাপ পরীক্ষামূলক ভাবে অনলাইনে করা হবে।

কারণ চিরাচরিত অফলাইন পদ্ধতির বদলে এই দুটি ধাফ অনলাইনে করে নেওয়া গেলে ফলপ্রকাশ তাড়াতাড়ি করা সম্ভব হতে পারে বলে পর্ষদের ধারণা। সম্ভবত মে মাসের শেষ দিকে এই বছরের WBBSE মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশ হতে পারে। পরীক্ষা শেষ হবার পর উত্তরপত্র মূল্যায়ন প্রক্রিয়ায় মোট পাঁচটি ধাপ থাকে।

Ads

জ্বর, সর্দি, কাশি ভাইরাস মোকাবিলা করতে নির্দেশিকা দিল স্বাস্থ্য দপ্তর। আতঙ্কিত না হয়ে জেনে নিন।

এর মধ্যে দুটি ধাপ হল উত্তরপত্র নম্বর সংক্রান্ত বিষয়ে মুখ্য পরীক্ষকদের কাছ থেকে নম্বর সংক্রান্ত ব্যাখ্যা তলব এবং যাচাই পদ্ধতি। এই দুটি ধাপই WBBSE – এই বছর অনলাইনে করে ফেলতে চাইছে। এর ফলে অনেকটা সময় বাঁচানো সম্ভব। এই প্রসঙ্গে, পর্ষদের সভাপতি রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায় বলেন, “উত্তরপত্র মূল্যায়নে এই ২টি ধাপ অনলাইনে করা হলেও মাধ্যমিকের ফলপ্রকাশে বিলম্ব হবে না”।

Advertisement

সাথে পরীক্ষার্থীদের আশ্বাস দিয়ে তিনি বলেন, মে মাসের শেষ সপ্তাহের মধ্যেই WBBSE মাধ্যমিকের ফল প্রকাশ করা হবে। পর্ষদ জানিয়েছে, আগে মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর নম্বর নিয়ে মুখ্য পরীক্ষকের কাছ থেকে কোনও ধরনের ব্যাখ্যা তলবের প্রয়োজন হলে তার জন্য প্রয়োজনীয় নিষ্পত্তির প্রক্রিয়ায় সাধারণত কুড়ি দিন মত সময় লাগত। তবে এই ধাপটি এই বছর অনলাইনে করা হলে তুলনামূলক ভাবে সময় বাঁচবে।

Advertisement

উঠে যাচ্ছে রাজ‍্যের 9 হাজার স্কুল, শিক্ষক শিক্ষিকাদের সারপ্লাস ট্রান্সফার শুরু হবে।

আবার, ফলপ্রকাশের আগে পরীক্ষার্থীদের নম্বর যাচাইয়ের ধাপটিও অনলাইনে করা হলে অনেকাংশে সময় বাঁচানো যাবে। ফলে সামগ্রিক ভাবে পাঁচটি ধাপ পেরিয়ে মাধ্যমিক পরীক্ষার ফলপ্রকাশের সার্বিক প্রক্রিয়াটি তুলনামূলকভাবে আগের চেয়ে তাড়াতাড়ি হবে বলে আশা করছে পর্ষদ। প্রসঙ্গত, এতদিন অবধি পরীক্ষা শেষ হবার ৯০ দিনের মাথায় ফলপ্রকাশ করা হত মাধ্যমিকের। এই বছর এই চিরাচরিত রীতি ভেঙে ৯০ দিনের আগেই হয়ত ফলপ্রকাশ করা হবে।
Written by Parna Banerjee.

Ads

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement