Recruitment Scam – পশ্চিমবঙ্গের SSC এবং TET সমস্ত মামলা থেকে হাত তুলে নিল সুপ্রিম কোর্ট। এবার কি হবে হবু শিক্ষকদের?

রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত মামলা (WBBPE WBSSC TET Recruitment Scam) নিয়ে এবার বড়সড়ো আপডেট দিল সুপ্রিম কোর্ট। তবে এর ফলে পরীক্ষার্থীদের কোনো উপকার হল না। বরং আরও আশঙ্কা বাড়ল তাদের। সেই ২০১৪ সাল থেকে শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে রাজ্যে সূত্রপাত বিভিন্ন দুর্নীতির। তখন থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত পাহাড় প্রমাণ কেস জমে রয়েছে আদালতের কাছে।

Advertisement

West Bengal SSC TET Recruitment Scam

শুধু রাজ্যের হাইকোর্ট নয়, বরং দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টেও প্রচুর কেস (Recruitment Scam) বিচারাধীন এই নিয়ে। আর সেই সমস্ত মামলাগুলি থেকে এবার হাত তুলে নিল এই আদালত। আজই এই রায় ঘোষণা করা হল আদালতে। তাহলে এবার কি হবে পরীক্ষার্থীদের? সেই সমস্ত মামলার বিচার এখন কে করবে? নাকি খারিজ করে দেওয়া হল সেগুলি, এই আশঙ্কাই সকলের মনে। দেখে নিন এব্যাপারে কি বলল সর্বোচ্চ আদালত।

প্রাথমিক, উচ্চ প্রাথমিক এবং উচ্চ মাধ্যমিক সকল স্তরের শিক্ষক শিক্ষিকা নিয়োগ, এমনকি গ্রুপ সি ও ডি বিভাগের কর্মী নিয়োগ নিয়েও মামলা (Recruitment Scam Case) চলেছে বলে জানিয়েছেন পরীক্ষার্থীরা। প্রথমে কলকাতা হাইকোর্টের কাছে তাদের এই আবেদন জমা পড়ে। সেখান থেকে কেস গুলিকে ট্রান্সফার করা হয় সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের ডিভিশন বেঞ্চের কাছে।

Ads

আর এবার সেই সমস্ত কেসের উপর থেকে সরাসরি হাত তুলে নিল সুপ্রিম কোর্টের বিচারকরা। আজই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হল আদালতে। বলা হয়েছে, এরপর থেকে শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত কোনো মামলার (Recruitment Scam) বিচার সুপ্রিম কোর্টে আর করা হবে না। তবে না, সুপ্রিম কোর্ট কিন্তু তার দায়িত্ব এড়িয়ে যায়নি একেবারেই।

Advertisement

একদিকে যেমন এই সকল মামলার সিদ্ধান্ত আর সেই আদালত দেবে না বলে জানানো হয়েছে, তেমনি অন্যদিকে এই সকল কেসগুলিকে পুনরায় ফেরত পাঠানো হয়েছে আবারও কলকাতা হাইকোর্টের কাছেই। সর্বোচ্চ আদালত জানিয়েছে এরপর থেকে শিক্ষক নিয়োগের যাবতীয় মামলার বিচার, শুনানি এবং রায় ঘোষণা (Recruitment Scam) করবে হাইকোর্টের বিচারপতিদের ডিভিশন বেঞ্চই।

Advertisement

এদিন সুপ্রিম কোর্টে কেন্দ্রীয় দুই তদন্তকারী সংস্থা যথাক্রমে সিবিআই এবং ই ডি মারফত চারটি রিপোর্ট পেশ করা হয়। কিন্তু সেই রিপোর্টগুলির আর কোনরকম বিচার করা হয় না আদালতে। কারণ এরপরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে সমস্ত মামলাগুলিকে ফেরত পাঠানো হবে পুনরায় কলকাতা হাইকোর্টের কাছে। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এদিন স্বয়ং জানিয়েছেন যে আগামী তিন মাসের মধ্যে যতগুলি কেস তারা ফেরত পাঠাচ্ছেন সবগুলির বিচার শেষ করে চূড়ান্ত রায় (Recruitment Scam) দিতে হবে হাইকোর্টকে।

Ads

আরও পড়ুন, ডিএ মামলার মাঝেই সুখবর। পশ্চিমবঙ্গের কর্মীদের DA ঘোষণা। কত বাড়ছে বেতন?

সূত্রের খবর অনুযায়ী জানা যাচ্ছে সুপ্রিম কোর্ট এক্ষেত্রে মোট ১২টি শিক্ষক নিয়োগ মামলার দায়ভার দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টকে। এই সমস্ত কেস গুলি গেছে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি শিবজ্ঞানমের ডিভিশন বেঞ্চের কাছে। সুপ্রিম কোর্ট স্পষ্ট করে জানিয়ে দিয়েছে, আগামী তিন মাসের মধ্যে হাইকোর্টকে এই সকল মামলার কাজ মেটাতেই হবে।

আরও পড়ুন, কেন্দ্রের এই প্রকল্পে পেতে পারেন 2 লাখ টাকা। কিভাবে আবেদন করবেন, জেনে নিন।

প্রয়োজন মত তদন্তকারী সংস্থাগুলিকে সকল সাক্ষ্য প্রমাণ এরপর থেকে হাইকোর্টে পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে সর্বোচ্চ আদালত। সেগুলির ওপর ভিত্তি করে মামলা গুলি বিচার করবে হাইকোর্ট। আর সত্যি মিথ্যা জানা যাবে তাতেই। তারপর যারা দুর্নীতির (Recruitment Scam) সঙ্গে যুক্ত তাদের চাকরি যাবে আর যারা নির্দোষ তাদের চাকরি থাকবে, জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।
Written by Nabadip Saha.

সুখবর বাংলা

Leave a Comment

Advertisement