E Mudra Loan – প্রধানমন্ত্রীর নতুন এই প্রকল্পে ব্যাংকে আধার লিংক থাকলেই কার্ড টাকা পাবে সবাই।

বর্তমান সময়ে প্রত্যেক ব্যক্তি নিজের (E Mudra Loan) উপার্জনের অর্থ ভবিষ্যতের জন্য সেভিংস করেন। এখনকার যুগে ফিক্সড ডিপোজিট করে বেশি লোকজন। আর সেইসব ফিক্সড ডিপোজিট এর একটা মেয়াদকাল থাকে তার আগে টাকা তোলা যায় না। কিন্ত মানুষের বিপদ বলে কয়ে আসেনা। কিংবা কোনো কিছু বড়ো ধরনের করতে চাইলে যেমন বাড়ি বানানো কিংবা কোনো ব্যাবসা দাড় করানোর জন্য সবার কাছে বিপুল পরিমাণ অর্থ থাকেনা।

Advertisement

How to Apply Online or Offline SBI E Mudra Loan

সেইসব মানুষেরা কোনো প্রতিষ্ঠান বা ব্যাংক থেকে লোন সহজে নিতেও পারেনা। তাই অনেক বড়ো কাজ করা থেকে পিছিয়ে আসতে হয়। কিন্ত এবার সেই হবে মুশকিল আসান। কারণ নরেন্দ্র মোদী দিচ্ছেন E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন। যার ফলে উপকৃত হবে ৪০ কোটি জনগণ।

নরেন্দ্র মোদী অনেক রকম প্রকল্প ব্যাবস্থা করেছেন ভারতবাসীর জন্য। আর সামনেই লোকসভা নির্বাচন। তাই রাজ্য কিংবা কেন্দ্র মানুষের সুবিধার জন্য একের পর এক প্রকল্প আনছেন। আর এই লোন সংক্রান্ত প্রকল্প হলো E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন।

Ads
  • লোনের উদ্দেশ্য
  • লোনের পরিমাণ
  • সুদের হার
  • লোনের জরুরী তথ্য
  • প্রয়োজনীয় নথি
  • অনলাইন আবেদন পদ্ধতি
  • অফলাইন আবেদন পদ্ধতি

লোনের উদ্দেশ্য

এর আগে প্রধানমন্ত্রী মুদ্রা যোজনা চালু করেছিলেন। বেকার যুবক যুবতীদের যারা নিজের পায়ে দাড়াতে পারেনি তাদের উৎসাহিত করতে এই মুদ্রা যোজনা চালু করেছিলেন। এই যোজনার মাধ্যমে লোন নিয়ে তারা ব্যাবসা শুরু করতো।

Advertisement

তেমনই মুদ্রা যোজনার আরেকটি রূপ E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন। বহু ব্যক্তি এই মুদ্রা যোজনার মাধ্যমে লোন নিয়ে নিজের ব্যাবসা করে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। তেমনই আরো একবার ৪০ কোটি জনগণকে সুবিধা দিতে ই মুদ্রা লোন আনা হয়েছে।

Advertisement

লোনের পরিমাণ

প্রধানমন্ত্রী এই E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন প্রকল্পে আপনি বিপদকালিন সময়ে উপযুক্ত কারণ দেখিয়ে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন পেতে পারবেন। আর সুদের পরিমাণ ব্যাংক বা অন্য প্রতিষ্ঠান থেকে অনেক কম। যেটা সাধারণ মানুষের আওতায় থাকে দেওয়ার জন্য।

Ads

আপনিও যদি এই মুহূর্তে ঋণ পাওয়া নিয়ে চিন্তার মধ্যে থাকেন তাহলে এই প্রতিবেদনটি আপনার জন্য। এই E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোনে কীভাবে আবেদন করবেন? সুদের হার কত? এমন আরও তথ্য জেনে নিন।

সুদের হার

ব্যাংক অনুযায়ী সুদের হার একটু হেরফের করে তবে মোটামুটি ৯ থেকে ১২ শতাংশের মধ্যে সুদ নেওয়া হয়। তবে SBI ব্যাংকে সবচেয়ে বেশি সুবিধা দিচ্ছে E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোনের ক্ষেত্রে। একমাত্র আপনি SBI তেই অনলাইনে ৫ লাখ টাকার মতন লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন। আর মাত্র ৫ মিনিটেই আপনার লোন স্যাংশন হয়ে যাবে।

লোনের জরুরী তথ্য

  • প্রধানমন্ত্রী মুদ্রা যোজনা প্রকল্পের জন্য তিনভাগে ঋণ দেওয়া হবে। অর্থাৎ একটি শিশু ঋণ (শিশুদের পড়াশুনার জন্য) দ্বিতীয় কিশোর ঋণ (পড়াশুনা বা চাকরির পরীক্ষার পড়ার জন্য) আর তরুণ ঋণ (ব্যাবসা করার জন্য)।
  • প্রত্যেক ভাগের জন্য ঋণের পরিমাণ ভিন্ন। যেমন শিশু ঋণের আওতায় ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত লোন দেওয়া হবে আবেদনকারীদের। কিশোর ঋণের আওতায় ৫০ হাজার থেকে ৫ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন দেওয়া হবে। আর তরুণ ঋণের মাধ্যমে ৫ লাখ থেকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ দেওয়া হবে।
  • তিনটি ভাগের ক্ষেত্রে সুদের পরিমাণ ও ভিন্ন।

1 লাখ টাকা 2 বছরের জন্য FD করলে কোন ব্যাংকে কত রিটার্ন পাবেন? দেখে নিন

প্রয়োজনীয় নথি

  • দু কপি সাম্প্রতিক পাসপোর্ট আকারের ফটো
  • আবেদন পত্র মুদ্রা লোনের
  • KYC নথি যেমন আপনার পাসপোর্ট, ভোটার আইডি কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, আধার কার্ড, ইউটিলিটি বিল, প্যান কার্ড
  • বিশেষ পরিচয় নথি যেমন আপনার জাতি শংসাপত্র, যদি আপনি SC, ST এর সার্টিফিকেট
  • আবেদনকারীর ব্যবসার আয়ের প্রমাণ।
  • ব্যাংকের বইএর জেরক্স
  • আবেদনকারীর ব্যবসার ঠিকানা ও প্রমাণ।
  • আবেদনকারীর ব্যবসা প্রতিষ্ঠার একটি প্রমাণ।
SBI Life Retire Smart Plan বা স্টেট ব্যাংক রিটায়ার স্মার্ট প্ল্যান

অনলাইন আবেদন পদ্ধতি

  • আবেদনকারীকে সর্বপ্রথম স্টেট ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট www.onlinesbi.in এ যেতে হবে।
  • এরপর মুদ্রা যোজনার পেজে যেতে হবে।
  • তারপর যে আবেদন পত্রটি দেখা যাবে সেটিকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে পূরণ করতে হবে। এখানে নিজের নাম, ঠিকানা, ব্যাংক একাউন্ট নম্বর, ব্যবসার নাম, ব্যবসার অন্যান্য বিবরণ, কত টাকা ঋণ নেবেন সে গুলি সব উল্লেখ করতে হবে।
  • তারপর নতুন পেজ খুলবে। এখানে প্রয়োজনীয় নথিপত্র স্ক্যান করে আপলোড করে দিতে হবে।
  • এরপর সাবমিট অপশনে ক্লিক করলেই আবেদন হয়ে যাবে।

অফলাইন আবেদন পদ্ধতি

আপনি যে কোনো রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক থেকে অফলাইনে আবেদন করতে পারেন। যেটার মধ্যে আপনার অ্যাকাউন্ট রয়েছে। আপনার নিকটবর্তী সেই ব্যাংকে গিয়ে ব্যাংক আধিকারিকদের সাথে কথা বলতে হবে। আপনাকে জানাতে হবে কেন আপনি এই E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন চান।

প্রতিদিন মাত্র 160 টাকা জমিয়ে কোটিপতি হওয়ার সুযোগ দিচ্ছে LIC এর এই নতুন পলিসি। দ্রুত বিনিয়োগ দ্রুত রিটার্ন।

এরপর তারা আপনাকে একটি আবেদন পত্র দেবে। সেই আবেদন পত্রে সমস্ত তথ্য সঠিকভাবে পূরণ করতে হবে সেইসাথে যা প্রয়োজনীয় নথি চাইবে সেগুলো দিতে হবে। হবে। তাহলেই আবেদন হয়ে যাবে এবং ব্যাংক আপনাকে একটা স্লিপ দেবে সেটা রেখে দেবেন। E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন স্যংশন হলে আপনার অ্যাকাউন্টে টাকা চলে যাবে।

প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক এই E Mudra Loan বা ই মুদ্রা লোন দেশের বেকার যুবক যুবতীদের নিজেদের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য উৎসাহিত করার একটা মাধ্যম। আপনিও যদি ব্যাবসা করে নিজের পায়ে দাড়াতে চান তাহলে ই মুদ্রা লোনের জন্য আবেদন করতে পারেন উপরিউক্ত পদ্ধতিতে। এমন আরও সরকারি প্রকল্প ও তাদের সুবিধা জানতে এই পেজ ফলো করুন।

সম্পাদক

Leave a Comment

Advertisement